নকিয়ার নতুন ৪ ফোন

নকিয়া ব্র্যান্ডের প্রস্তুতকারক প্রতিষ্ঠান এইচএমডি গ্লোবাল ২৬ ফেব্রুয়ারি রোববার, নিউ জেনারেশন বা নতুন প্রজন্মের ৩টি নকিয়া অ্যান্ড্রয়েড স্মার্টফোন ও ১টি ফিচারফোন  বাজারজাতকরণের ঘোষণা দিয়েছে।

নতুন এই স্মার্টফোনগুলো খুবই উন্নত ডিজাইন বা নকশায় তৈরি ও উচ্চ মানসম্পন্ন। এসব ভোক্তা বা ব্যবহারকারীদের স্মার্টফোন ব্যবহারে দুর্দান্ত এক অভিজ্ঞতা দেবে। বিশ্ব জুড়ে বহুল প্রত্যাশিত নতুন নকিয়া স্মার্টফোনগুলো হচ্ছে- নকিয়া ৬, নকিয়া ৫ ও নকিয়া ৩। এর মধ্যে অসাধারণ ডিজাইন বা দৃষ্টিনন্দন নকশায় তৈরি নকিয়া ৬ স্মার্টফোনটি ব্যবহারকারীদের দারুণ বিনোদন তথা আনন্দ দেবে। নকিয়া ৫ হল একটি অভিজাত স্মার্টফোন। দেখতে অত্যন্ত ছিমছাম এই স্মার্টফোনটি হাতে নিয়ে চলতে ব্যবহারকারীরা খুবই স্বচ্ছন্দ বোধ করবেন। আর নকিয়া ৩ স্মার্টফোনটির মানও নজিরবিহীন, অথচ এটি দামে অত্যন্ত সহজলভ্য বা সাশ্রয়ী। নকিয়ার নতুন প্রজন্মের এই স্মার্টফোনগুলো অ্যান্ড্রয়েড নোগাট অপারেটিং সিস্টেমে চলে; যা বেশ স্বচ্ছন্দময়, নিরাপদ এবং ব্যবহারকারীদের স্মার্টফোন ব্যবহারে নিত্যনতুন অভিজ্ঞতা দেবে এবং এতে গুগল অ্যাসিস্ট্যান্ট এর সব ফিচারও থাকবে।

এদিকে স্মার্টফোনের পাশাপাশি সেই বিখ্যাত ‘নকিয়া ৩৩১০’ মডেলের ফিচার ফোনও নতুন রূপে উন্মুক্ত করা হয়েছে। এক সময় নকিয়ার প্রতীক হয়ে ওঠা এই ফোনটি আনা হয়েছে সম্পূর্ণ নতুন ডিজাইনে ও অত্যাধুনিক প্রযুক্তির সংযোজন ঘটিয়ে।

নকিয়া পরিবার বিশ্বাস করে, শুধু সর্বোচ্চ দামের স্মার্টফোনেই নয়, বরং অন্যান্য ফোনেও উচ্চ মান বজায় থাকা উচিত, যাতে প্রত্যেক ভোক্তা বা ব্যবহারকারীই এ ধরনের ডিভাইস ব্যবহারের সুযোগ পান। সে অনুযায়ী সুচিন্তিত ডিজাইন বা নকশায় স্মার্টফোন তৈরির দর্শন মেনে তবেই সব পর্যায়ের গ্রাহকদের জন্য নকিয়া ব্র্যান্ডের স্মার্টফোন বাজারে আনা হচ্ছে। এসব স্মার্টফোনে প্রযুক্তিগত ও কারিগরি উপাদান বজায় রাখা এবং ডিজাইন সুন্দর করার ব্যাপারে বিশেষভাবে নজর দেওয়া হয়েছে; যাতে গ্রাহকেরা তাঁদের দৈনন্দিন জীবনে ফোন ব্যবহারে সর্বাধিক আনন্দ উপভোগ করতে পারেন। নকিয়া ফোনের গুণগত মান, সহজতা, ডিজাইন বা নকশা ও বিশ্বাসযোগ্যতা বজায় রাখার যে ঐতিহ্য ছিল সেটি এই নতুন স্মার্টফোনগুলো তৈরির ক্ষেত্রেও মানা হয়েছে; যাতে নতুন প্রজন্মের নকিয়া ফ্যান বা ব্যবহারকারীরাও এসব নকিয়া ফোনের প্রতি আকৃষ্ট ও মুগ্ধ হন।

নকিয়া নির্ভেজাল একটি অ্যান্ড্রয়েড ফোন ব্যবহারের অভিজ্ঞতা দেয়ায় অঙ্গিকারবদ্ধ এবং গ্রাহক তথা ব্যাবহারকারীরা একটি সহজ, নির্ভেজাল এবং সুনিয়ন্ত্রিত অ্যান্ড্রয়েড অভিজ্ঞতা আশা করতে পারেন। ফোনগুলোতে সব চাইতে অত্যাধুনিক গুগল সার্ভিসের প্রয়োগ করে মাসিক ভিত্তিতে সিকিউরিটি আপডেট করে রাখা যাবে, যার ফলে ফোনগুলো হবে নিরাপদ এবং সুরক্ষিত এবং আপডেটেড। নকিয়ার নতুন স্মার্টফোন গুগলের সবচাইতে আধুনিক প্রযুক্তি গুগল অ্যাসিস্ট্যান্ট এর প্রয়োগ করে ব্যাবহারকারীদের দেবে দারুন এক অ্যান্ড্রয়েড ফোনের অভিজ্ঞতা।

এছাড়াও ঘোষণা করা হয়েছে যে, বিশ্বখ্যাত সেই স্নেক গেমটি নকিয়া ৩৩১০ মোবাইলের তারা আবার নিয়ে আসছে এবং গেমটির নতুন ভার্সন মেসেঞ্জার এর ফেসবুক ইনস্ট্যান্ট গেম ক্রস প্লাটফর্ম এ উপভোগ করা যাবে। তবে এবারে গেমটিকে আগের চেয়ে অনেক বেশি উপভোগ্য খেলা হিসেবে তৈরি করা হয়েছে এবং এটি বন্ধুদের সাথে দলবদ্ধ হয়ে খেলা যাবে।

জেনে নিন নকিয়া নতুন ৪টি ফোনের ফিচার।

বৈশ্বিক ফোন হিসেবে আসছে নকিয়া ৬
নকিয়া ৬ স্মার্টফোন নির্মাণের শিল্প-কৌশল বা নির্মাণশৈলী অত্যন্ত উচ্চমানের এবং এটির ডিজাইন বা নকশাতেও রয়েছে স্বাতন্ত্র্য-স্বকীয়তা। স্মার্টফোনটির অডিও সিস্টেম যেমন দারুণ তেমনি এটির সাড়ে ৫ ইঞ্চির উজ্জ্বল ও পূর্ণ এইচডি স্ক্রিন বা পর্দায়ও ছবি এবং ভিডিও বেশ ঝকঝকে ও নিখুঁত রঙয়ে দেখাবে। নকিয়া ৬ সত্যিকার অর্থেই একটি প্রিমিয়াম স্মার্টফোনের অভিজ্ঞতা দেবে গ্রাহকদের। এটির ইউনিবডি বা উপরিকাঠামো একটি একক ৬০০০ সিরিজ অ্যালুমিনিয়াম দিয়ে তৈরি। এর স্মার্ট অডিও অ্যাম্পলিফায়ারে দুটি স্পিকার রয়েছে। ফলে এতে শব্দ বেশ নিখুঁত ও স্পষ্ট হবে। এতে আছে ডলবি অ্যাটমস। ফলে স্মার্টফোনটি ব্যবহারকারীদের দারুণ বিনোদন দেবে। চারটি কালারে পাওয়া যাবে এই সেট। কালারগুলো হচ্ছে- ম্যাটেব্ল্যাক, সিলভার, টেম্পারড ব্লু ও কপার। বৈশ্বিক বাজারে নকিয়া ৬ স্মার্টফোনটির গড় খুচরা বিক্রয়মূল্য হবে ২২৯ ইউরো।

নকিয়া ৬ আর্ট ব্ল্যাক লিমিটেড এডিশন : বিশ্বব্যাপী নকিয়া ৬ পোর্টফলিওর বিশেষ এডিশনের নকিয়া আর্ট ব্ল্যাক লিমিটেডে রয়েছে ৬৪ জিবি স্টোরেজ ও ৪ জিবি র‌্যাম। বিশেষ এডিশনের এই স্মার্টফোনটিকে বলা হচ্ছে, নকিয়া ৬ ফ্যামিলির সবচেয়ে বৈশিষ্ট্যমন্ডিত ফোন। স্টানিং ব্ল্যাক হাই গ্লস প্যাকেজের বা চকচকে কালো রংয়ের ঝকঝকে এই স্মার্টফোনটি বিশ্ববাজারে খুচরা পর্যায়ে গড়ে ২৯৯ ইউরো দামে বিক্রি হবে।

নকিয়া ৫

নতুন নকিয়া ৫ স্মার্টফোনটি দেখতে বেশ মসৃণ, চকচকে ও আঁটসাঁট ব ছিমছাম। ফলে ব্যবহারকারীরা এই স্মার্টফোনটি হাতে রাখতে অত্যন্ত আরাম বোধ করবেন এবং আনন্দ পাবেন। নকিয়া ৫ স্মার্টফোনটির ইউনিবডি অত্যন্ত নিখুঁতভাবে একটি একক ৬০০০ সিরিজ অ্যালুমিনিয়াম দিয়ে তৈরি, যা দেখতে অনেকটা বালিশের দৃষ্টিনন্দন আবরণের মতো। এই স্মার্টফোনে রয়েছে করনিং গরিলা গ্লাস ও ৫.২ ইঞ্চি ল্যামিনেটেড আইপিএস এইচডি ডিসপ্লে। এতে কোয়ালকম অ্যাড্রেনো ৫০৫ গ্রাফিক্স প্রসেসর এবং কোয়ালকম স্নেপড্রাগন ৪৩০ মোবাইল প্লাটর্ফম রয়েছে। নকিয়া ৫ স্মার্টফোনটির কাঠামো খুবই মজবুত এবং এটি হাই-এন্ড বা উচ্চ মানসম্পন্ন স্মার্টফোনের মতোই খুব উন্নত। বাজারে নকিয়া ৫ স্মার্টফোনটি পাওয়া যাবে চার কালারে বা রংয়ে। কালারগুলো হচ্ছে- ম্যাটেব্ল্যাক, সিলভার, টেম্পারড ব্লু ও কপার। বৈশ্বিক বাজারে নকিয়া ৫ স্মার্টফোনটির গড় খুচরা বিক্রয়মূল্য হবে ১৮৯ ইউরো।

নকিয়া ৩

নজিরবিহীন কম দামে গ্রাহকদের উন্নত মানের স্মার্টফোন ব্যবহারের আনন্দ-অভিজ্ঞতা দিতে নিয়ে আসা হয়েছে নতুন নকিয়া ৩ স্মার্টফোন। এটির উপরিকাঠামো মেশিনড অ্যালুমিনিয়ামে তৈরি। এতে আছে করনিং গরিলা গ্লাস, ৫ ইঞ্চি ল্যামিনেটেড ডিসপ্লে এবং সামনে ও পেছনে ৮এমপি ওয়াইড অ্যাপারচার ক্যামেরা। আঁটসাঁট বা ছিমছাম ও দৃষ্টিনন্দন গঠনে তৈরি এই সেট গ্রাহকদের সত্যিকার অর্থেই একটি প্রিমিয়াম কোয়ালিটির স্মার্টফোন ব্যবহারের আনন্দ-অভিজ্ঞতা দেবে। বাজারে চারটি কালারে পাওয়া যাবে এই স্মার্টফোন। কালারগুলো হচ্ছে- সিলভারহোয়াইট, ম্যাটে ব্ল্যাক, টেম্পারড ব্লু ও কপার হোয়াইট। বিশ্ববাজারে নকিয়া ৩ স্মার্টফোনটির গড় খুচরা দাম হবে ১৩৯ ইউরো।

নকিয়া ৩৩১০

নকিয়ার এক সময়কার প্রতিকের একটি চমকপ্রদ আবির্ভাব। হাল্কা ও অবিশ্বাস্য রকমের মজবুত গঠনের নকিয়া ৩৩১০ মোবাইল হ্যান্ডসেটটি সর্বকালের সর্বাধিক বিক্রীত ফিচার ফোনগুলোর একটি। সেই ফোনটিকে এবারে নতুন আঙ্গিকে নিয়ে আসা হয়েছে, যার নতুনত্ব ও চমৎকারিত্ব মাথা ঘুরিয়ে দেবে গ্রাহকদের। নতুন, কালারফুল, আধুনিক গঠনে আকর্ষণীয় করে নিয়ে আসা এই ফোনে অবিশ্বাস্যভাবে যেন রয়েছে ২২ ঘণ্টার টক-টাইম ও এক মাসব্যাপী স্ট্যান্ড-বাই টক-টাইম। নকিয়া ৩৩১০ মোবাইল ফোন সেটটি চারটি আলাদা রঙয়ে বাজারে পাওয়া যাবে – ওয়ার্মরেড ও ইয়েলো এ রংয়ে গ্লোস ফিনিশ এবং ডার্ক ব্লু বা গাঢ় নীল ও গ্রে বা ধূসর এ রংয়ে ম্যাট ফিনিশ। নকিয়া ৩৩১০ মোবাইল ফোন সেটটি বৈশ্বিক বাজারে খুচরা পর্যায়ে গড়ে ৪৯ ইউরো দামে বিক্রি হবে।

অ্যাকসেসরিজ :

ব্র্যান্ডের ডিজাইন বা নকশা উন্নততর করার দর্শন অনুযায়ী ওপরের ফোনগুলোর পাশাপাশি এগুলোর বিভিন্ন অ্যাকসেসরিজও বাজারজাতকরণের ঘোষণা দিয়েছে এইচডি গ্লোবাল। নকিয়ার অ্যাকসেসরিজ পোর্টফলিওতে যোগ হওয়া এসব পণ্যের মধ্যে রয়েছে- হেডসেট, পোর্টেবল ও ব্লুটুথ স্পিকার, ইন-কার চার্জার, কেসেস ও স্ক্রিন প্রটেক্টর ইত্যাদি।

এইচএমডি গ্লোবালের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) আর্তো নুমেলা বলেন, ‘বিশ্বে যুগ যুগ ধরে নকিয়া একটি সবচেয়ে আইকোনিক বা প্রবাদতূল্য ও স্বীকৃত ফোন ব্র্যান্ড হিসেবে প্রতিষ্ঠিত। এইচএমডি বাজারে যাত্রা শুরু করার পরবর্তী সংক্ষিপ্ত সময়ে আমরাও এ ব্র্যান্ডের পণ্যের বিষয়ে ইতিবাচক সাড়া পেয়েছি। ফলে আমরা সামনের দিকে অগ্রসর হচ্ছি। আগের যেকোনো সময়ের তুলনায় আজকের দিনে ভোক্তারা অনেক বেশি সুক্ষ্ম বিচার-বিবেচনায় অভ্যস্ত এবং তাদের চাহিদাও প্রতিনিয়ত বদলায়। সে জন্য আমরাও সব সময় তাদের চাহিদাকে অগ্রাধিকার দিয়ে চলি। সে অনুযায়ী আমরা গর্বের সাথে বিশ্বমানের উৎপাদক, অপারেটিং সিস্টেম ও টেকনোলজি পার্টনার বা প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠানের সাথে অংশীদারিত্বের মাধ্যমে পণ্য বাজারে নিয়ে আসার চেষ্টা করেছি। তারই নিদর্শন হিসেবে আমাদের প্রথম বৈশ্বিক পোর্টফলিওতে জায়গা করে নিল স্মার্টফোন; যার মাধ্যমে আমরা সবাইকে সর্বোত্তম সেবা পাওয়ার অভিজ্ঞতা দিতে চাই।’’

এইচএমডি গ্লোবালের প্রেসিডেন্ট ফ্লোরিয়ান সেইশ্চ বলেন, ‘ পণ্য ও উৎপাদন উভয় ক্ষেত্রেই আমাদের সফলতা অর্জনের জন্য কৌশলগত ও অর্থপূর্ণ পার্টনারশিপ বা অংশীদারিত্ব প্রয়োজন। একইভাবে বাজার পর্যায়েও সঠিক অংশীদারিত্ব গড়ে তোলার ব্যাপারেও আমরা অঙ্গীকারাবদ্ধ, যাতে আমাদের সব ভোক্তার কাছে পৌঁছাতে পারি এবং তাঁদের সর্বোত্তম সেবা দিতে সক্ষম হই। আমরা বিশ্বজুওে অপারেটরদের এবং রিটেইলারের কাছ থেকে যে উৎসাহ-উদ্দীপনা, সমর্থন ও উচ্ছ্বাসের বর্হিপ্রকাশ দেখতে পেয়েছি তা আমরা বিনম্র শ্রদ্ধায় স্মরণ করছি। আমরা প্রথম বৈশ্বিক স্মার্টফোনের সম্ভার বাজারে নিয়ে আসতে পেরে অত্যন্ত আনন্দিত। এটি সত্যি অসাধারণ কিছু। সে জন্য আমরা ভোক্তা তথা গ্রাহকদের নতুন নকিয়া পণ্যের প্রতি আগ্রহের কথা জানানোর অনুরোধ করছি তাঁদের। ভোক্তাদের আগ্রহের কথা নিবন্ধন করতে হবে এই ওয়েবসাইটে nokia.com/phones।’

ইউহো সারভিকাস, চিফ প্রোডাক্ট অফিসার, এইচএমডি গ্লোবাল বলেন, ‘নকিয়া ফোনটির সাথে মানুষের একটি আবেগের সম্পর্ক রয়েছে। ফোনটি তার নির্মানের দক্ষতা, ব্যাবহারযোগ্যতার জন্য পরিচিত, এবং টেকসই মানের জন্য আপনি এই ফোনটির ওপর পূর্ণ আস্থা রাখতে পারেন। আমাদের নতুন পণ্যগুলো নকিয়ার সেরা এসব ঐতিহাসিক বৈশিষ্ট্যের সাথে সবচাইতে সেরা অ্যান্ড্রয়েড এর সংযুক্তির মাধ্যমে নতুন একটি উদ্ভাবনা নিয়ে আসছে। আমরা অনেক দিন ধরেই নকিয়া ৩৩১০ বাজারজাত করার জন্য অধির হয়ে ছিলাম। আমরা আমদের বিশ্বস্থ নকিয়া ভক্তাদের প্রতিদান দিতে চাচ্ছিলাম এবং এটির প্রতিশ্রুতি দিতে চাচ্ছি যে সমৃদ্ধ ঐতিহ্য, উদ্ভাবনা, এবং আধুনিক প্রযুক্তি ও ডিজাইনের একত্রে সম্মেলন করা সম্ভব। আমাদের মূল উদ্দেশ্য এটা নিশ্চিত করা যে আমরা একটি পরিপূর্ণ নকিয়া ফোন ব্যাবহারের অভিজ্ঞতা দিতে সক্ষম হচ্ছি।’

 

– সিনিউজভয়েস ডেস্ক

Please Share This Post.