দেশে তৈরি আরেকটি ফোন বাজারে ছাড়লো ওয়ালটন

দেশে তৈরি সাশ্রয়ী মূল্যের আরেকটি স্মার্টফোন বাজারে ছেড়েছে ওয়ালটন। যার মডেল ‘প্রিমো এনএফ৩’। এই নিয়ে দেড় মাসের মধ্যে দেশে তৈরি তিনটি স্মার্টফোন বাজারে ছাড়লো ওয়ালটন। আগের দুটি মডেল হলো প্রিমো ই৮আই এবং ই৮এস। গাজীপুরের চন্দ্রায় ওয়ালটনের নিজস্ব কারখানায় তৈরি সাশ্রয়ী মূল্যের এসব ফোন ক্রেতাদের মাঝে ব্যাপক সাড়া ফেলেছে।

ওয়ালটন সেল্যুলার ফোন গবেষণা ও উন্নয়ন বিভাগের ডেপুটি ডিরেক্টর আরিফুল হক রায়হান জানান, প্রিমো এনএফ৩ স্মার্টফোনে ব্যবহৃত হয়েছে ৬ ইঞ্চির আইপিএস এইচডি ডিসপ্লে। ১৬ মিলিয়ন কালার সাপোর্টেড পর্দার রেজুলেশন ১২৮০ বাই ৭২০ পিক্সেল। ফলে ছবি বা ভিডিও দেখা, গেম খেলা কিংবা ইন্টারনেট ব্রাউজিং মিলবে আনন্দময় অভিজ্ঞতা। রয়েছে ফাইভ ফিংগার মাল্টি-টাচ সুবিধাও।

এই ফোনের পেছনে ব্যবহার করা হয়েছে এলইডি ফ্ল্যাশযুক্ত বিএসআই ৮ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা। এর সামনের ক্যামেরাও ৮ মেগাপিক্সেলের। ক্যামেরায় নরমাল মোড ছাড়াও রয়েছে ফেস বিউটি, প্যানোরমা, এইচডিআর মোডে ছবি তোলার সুবিধা। বিশেষ ফিচারের মধ্যে রয়েছে ফেস ডিটেকশন, ডিজিটাল জুম, সেলফ টাইমার, অটো-ফোকাস, কন্টিনিউয়াস ফোকাস, ভি-ক্যাপচার। উভয় ক্যামেরায় ধারণ করা যাবে ফুল এইচডি ভিডিও।

নতুন এই ফোনের উচ্চগতি নিশ্চিতে আছে ১.৩ গিগাহার্জের কোয়াড কোর প্রসেসর। রয়েছে ১ গিগাবাইট র‌্যাম। প্রাণবন্ত ভিডিও ও গেমিং অভিজ্ঞতা দিতে গ্রাফিক্স হিসেবে ব্যবহৃত হয়েছে মালি-৫০০। প্রয়োজনীয় ফাইল সংরক্ষণে রয়েছে ৮ গিগাবাইট স্টোরেজ। যা মাইক্রো এসডি কার্ডের মাধ্যমে ৩২ গিগাবাইট পর্যন্ত বাড়ানো যাবে।

অ্যান্ড্রয়েড নূগাট ৭.০ অপারেটিং সিস্টেমে পরিচালিত স্মার্টফোনটির প্রয়োজনীয় পাওয়ার ব্যাকআপের জন্য রয়েছে ৩৩০০ মিলিঅ্যাম্পিয়ার লি-পলিমার ব্যাটারি।

এই ফোনে মাল্টি-উইন্ডো প্রযুক্তি থাকায় একই সঙ্গে ডিসপ্লেতে একাধিক অ্যাপস ব্যবহার করা যাবে। ইন্টিগ্রেটেড ব্যাটারি সেভার থাকায় ব্যাটারি সাশ্রয় হবে।

থ্রিজি সাপোর্টেড ফোনটিতে একসঙ্গে ব্যবহার করা যাবে দুটি সিম। কানেক্টিভিটির জন্য আছে ওয়াই-ফাই, ব্লুটুথ ভার্সন ৪, ল্যান হটস্পট, ওটিএ ও মাইক্রো ইউএসবি২ সুবিধা, জিপিএস, এ-জিপিএস নেভিগেশন, জাইরোস্কোপ, প্রক্সিমিটি, অ্যাকসিলারোমিটার (থ্রিডি) ইত্যাদি। মাল্টিমিডিয়া ফিচার হিসেবে আছে ফুল এইচডি ভিডিও প্লে-ব্যাক ও রেকর্ডিং সুবিধাসহ এফএম রেডিও।

ওয়ালটন সেল্যুলার ফোন ডিভিশন (মার্কেটিং) প্রধান আসিফুর রহমান খান জানান, মেটালিক পলিশ ডিজাইনের ফোনটি কালো ও সোনালি- এই দুই রঙে বাজারে ছাড়া হয়েছে। রোববার থেকে ফোনটি দেশের সব ওয়ালটন প্লাজা, ব্র্যান্ড ও রিটেইল আউটলেটে মিলছে। দাম মাত্র ৭ হাজার ৯৯ টাকা।

তিনি আরো জানান, বাংলাদেশে তৈরি এই স্মার্টফোনে ক্রেতারা পাবেন বিশেষ রিপ্লেসমেন্ট সুবিধা। স্মার্টফোন ক্রয়ের ৩০ দিনের মধ্যে যেকোনো ধরনের ত্রুটিতে সঙ্গে সঙ্গে ফোনটি পাল্টে ক্রেতাকে নতুন আরেকটি ফোন দেয়া হবে। এছাড়াও, ১০১ দিনের মধ্যে প্রায়োরিটি বেসিসে ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে ক্রেতা বিক্রয়োত্তর সেবা পাবেন। এছাড়াও, স্মার্টফোনে এক বছরের এবং ব্যাটারিতে ছয় মাসের বিক্রয়োত্তর সেবা তো থাকছেই।

উল্লেখ্য, দেশের সব ওয়ালটন প্লাজা ও ব্র্যান্ড আউটলেটে ০% ইন্টারেস্টে ৬ মাসের ইএমআই সুবিধায় কেনা যায় যেকোনো মডেলের ওয়ালটন স্মার্টফোন। রয়েছে ১২ মাসের কিস্তি সুবিধাও। আরো জানতে যোগাযোগ করুন ওয়ালটনের কাস্টমার কেয়ারে। যেকোনো মোবাইল এবং ল্যান্ডফোন থেকে ০৯৬১২৩১৬২৬৭ নম্বরে অথবা মোবাইল থেকে ১৬২৬৭ নম্বরে কল করে। ভিজিট করতে পারেন ওয়ালটনের ওয়েবসাইট www.waltonbd.com

 

– সিনিউজভয়েস ডেস্ক

Please Share This Post.