দেশের যেসব জায়গায় চালু হলো ফোরজি

আনুষ্ঠানিকভাবে লাইসেন্স পাওয়ার পর চতুর্থ প্রজন্মের মোবাইল নেটওয়ার্ক ফোর-জি অথবা এলটিই সংযোগ চালু করেছে মোবাইল সংযোগ সেবা দেওয়া তিনটি প্রতিষ্ঠান। ফোর-জি সংযোগ চালু করা এসব প্রতিষ্ঠান হচ্ছে বাংলালিংক, গ্রামীণ ফোন এবং রবি। রাজধানী ঢাকার কিছু নির্দিষ্ট এলাকাসহ রাজধানীর বাইরেও চালু হয় বহুল প্রতীক্ষিত এ সেবা।

সোমবার আনুষ্ঠানিকভাবে ঢাকা ক্লাবে চারটি মোবাইল সংযোগ অপারেটরের কাছে লাইসেন্স হস্তান্তর করে বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ রেগুলেটরি কমিশন বিটিআরসি। প্রতিষ্ঠানগুলো হল বাংলালিংক, গ্রামীণ ফোন, রবি এবং টেলিটক। এদের মধ্যে টেলিটক রাষ্ট্রায়ত্ত প্রতিষ্ঠান। এই প্রতিষ্ঠানটি বাদে আর সবাই ফোর-জি সেবা চালু করে। তবে এখন সীমিত পরিসরে নির্দিষ্ট কিছু এলাকায় পাওয়া যাবে এ সেবা।

বাংলালিংক
রাজধানী ঢাকাসহ বন্দর নগরী চট্টগ্রাম, সিলেট এবং খুলনায় সোমবার রাতেই ফোর-জি সংযোগ চালু করে বাংলালিংক। লাইসেন্স প্রদান অনুষ্ঠানে বেসরকারি মোবাইল অপারেটরগুলোর মধ্যে প্রথমেই লাইসেন্স দেওয়া হয় এ প্রতিষ্ঠানটিকে।

প্রতিষ্ঠানটির সিনিয়র কমিউনিকেশন ম্যানেজার অঙ্কিত সুরেকা ফোর-জি চালুর বিষয়টি নিশ্চিত করেন। তিনি বলেন, প্রাথমিক পর্যায়ে ২০০টিরও বেশি বিটিএস টাওয়ারের মাধ্যমে ৪টি বিভাগীয় শহরে এ সেবা চালু করা হচ্ছে। দ্রুতই তা পুরো দেশে বিস্তৃত করা হবে।

লাইসেন্স পাওয়ার পর প্রতিষ্ঠানটির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা এরিক অস বলেন, দিনটি আমাদের জন্য বিশেষ। ফোরজি সেবা চালুর মাধ্যমে আমরা ডিজিটাল সংযোগের এক নতুন যুগে প্রবেশ করলাম। বাংলাদেশের মানুষের জন্য সর্বাধুনিক প্রযুক্তির সুবিধা আনতে পেরে বাংলালিংক গর্বিত। ফোরজি চালুর মাধ্যমে আমরা এমন এক নতুন ডিজিটাল বিশ্বে প্রবেশ করতে যাচ্ছি যেখানে জীবনযাত্রা এক নতুন মাত্রা পাবে”।

গ্রামীণ ফোন
রাজধানী ঢাকার গুলশান, বারিধারা, বসুন্ধরা এবং উত্তরায় ফোর-জি সেবা চালু করে গ্রামীণ ফোন। এছাড়াও চট্টগ্রামের দামপাড়া, খুলশী এবং নাসিরাবাদেও চালু হয়েছে এই সেবা। প্রতিষ্ঠানটির থেকে জানানো হয় যে, আসবে। বেশিরভাগ বিভাগীয় শহরে অচিরেই ফোর-জি চালু হবে। আগামী ছয় মাসের মধ্যেই সব জেলা শহরে ফোর-জি পৌছে যাবে।

রবি
বাংলালিংক এবং গ্রামীণ ফোনের পাশাপাশি রবি’ও ফোর-জি সেবা চালু করে। ১৭৯টি বিটিএস টাওয়ারের আওতাধীন এলাকায় চালু হয়েছে এ সেবা।

টেলিটক
অন্য অপারেটরগুলোর মত সোমবার থেকে ফোর-জি সেবা চালু না করলেও আগামী মে মাস থেকে ফোর-জি সেবা চালুর কথা জানায় রাষ্ট্রায়ত্ত মোবাইল সংযোগ অপারেটর প্রতিষ্ঠান টেলিটক। লাইসেন্স প্রদান অনুষ্ঠানে প্রতিষ্ঠানটির ব্যবস্থাপনা পরিচালক কাজী গোলাম কুদ্দুস বলেন, ইন্টারনেট এবং টেলি নেটওয়ার্কে উল্লেখযোগ্য অবদান রাখবে ফোর-জি। টেলিটক ‘বর্ণমালা’ প্যাকেজের মাধ্যমে শিক্ষার্থীদের এবং ‘অপরাজিতা’ প্যাকেজের মাধ্যমে নারী উন্নয়নে কাজ করে যাচ্ছে। এখন পর্যন্ত আমাদের যেসব সুবিধা দেওয়া হয় তার ১০ শতাংশ বাড়ানো হলে আমরা আমাদের ৭০ শতাংশ আউটপুট দিতে পারব।

সিনিউজভয়েস//ডেস্ক/

Please Share This Post.