দেশের প্রথম মাল্টিটাচ কম্পো-টিভি তৈরি করল ওয়ালটন

নিয়মিত গবেষণার মাধ্যমে গ্রাহকদের হাতে নিত্য নতুন প্রযুক্তি ও ডিজাইনের টেলিভিশন তুলে দিচ্ছে ওয়ালটনের টেলিভিশন গবেষণা ও উন্নয়ন (আরঅ্যান্ডডি) বিভাগের প্রকৌশলীরা। তারা উদ্ভাবন করছেন নিজস্ব প্রযুক্তি। এরই ধারাবাহিকতায় এবার তারা উদ্ভাবন করেছে মাল্টি-টাচ সুবিধা সম্বলিত বড় পর্দার কম্পো-টিভি।

গ্রাহকরা বড় পর্দায় হাতের স্পর্শেই নিয়ন্ত্রণ করতে পারবেন এই টিভির সব ফাংশন। এছাড়াও বড় পর্দায় লেখার জন্য ডিজিটাল বোর্ড হিসেবে অথবা অফিসে বা বাসায় প্রেজেন্টেশনের স্ক্রিন হিসেবেও এটি ব্যবহার করা যাবে। এটিতে ফেসবুক, ভাইবারসহ বিভিন্ন সোস্যাল, কমিউনিকেশন, বিজনেস অথবা এন্টারটেইনমেন্ট অ্যাপস চালানোর সুবিধাও রয়েছে। ভিডিও চ্যাটিংসহ টাচ-গেম প্রেমীদের জন্য রয়েছে বড় পর্দায় গেমিং এর সুযোগ।

নতুন এই উদ্ভাবনী প্রযুক্তির পরিচিতি উপলক্ষে ২৭ ডিসেম্বর, রাজধানীর বসুন্ধরায় ওয়ালটন করপোরেট অফিসের সম্মেলন কক্ষে ‘ইনট্রোডিউসিং অ্যান্ড ডিজাইন অ্যাওয়ার্ড-২০১৭’ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। যেখানে ওয়ালটনের অতিরিক্ত পরিচালক এবং টেলিভিশন বিভাগের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মোস্তফা নাহিদ হোসেন কম্পো-টিভির স্পেশাল টেকনিক্যাল ও মেকানিক্যাল দিকগুলো তুলে ধরেন। বাংলাদেশে বড় পর্দার মাল্টিটাচ কম্পো-টিভি ওয়ালটনই প্রথম তৈরি করল বলে অনুষ্ঠানে জানান তিনি।

অনুষ্ঠানে দেশের টেলিভিশন খাতে উদ্ভাবনী ও অসাধারণ ডিজাইনের টেলিভিশন নিয়ে আসায় আরঅ্যান্ডডি বিভাগকে ‘ডিজাইন অ্যাওয়ার্ড-২০১৭’ এর ক্রেস্ট প্রদান করেন ওয়ালটন কর্তৃপক্ষ।

এ সময় অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন ওয়ালটন গ্রুপের নির্বাহী পরিচালক (মার্কেটিং) এমদাদুল হক সরকার, অ্যাডিশনাল অপারেটিভ ডিরেক্টর ড মো. সাখাওয়াৎ হোসেন, ওয়ালটন প্লাজা সেলস অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট বিভাগের চিফ মার্কেটিং অফিসার মো. নিয়ামুল হক, টেলিভিশন আরঅ্যান্ডডি বিভাগের অ্যাডিশনাল ডিরেক্টর ফরহাদ হাসান মামনুন ও হাবিব ইফতেখার আলম, আরঅ্যান্ডডি (ইলেকট্রনিক্স) বিভাগের ফার্স্ট সিনিয়র অ্যাসিস্ট্যান্ট ডিরেক্টর মো. সাজেদুর রহমান, সিনিয়র অ্যাসিস্ট্যান্ট ডিরেক্টর মারুফ হাসান, মিডিয়া উপদেষ্টা এনায়েত ফেরদৌসসহ ওয়ালটনের উর্ধ্বতন কর্মকর্তারা ।

অনুষ্ঠানে ফরহাদ হাসান মামনুন জানান, ওয়ালটনের মাল্টিটাচ কম্পো-টিভিতে রয়েছে উচ্চ ক্ষমতাসম্পন্ন কোয়াডকোর প্রসেসর। এছাড়াও মাল্টিটাস্কিং এর জন্য রয়েছে ১ জিবি র‌্যাম, ৪ জিবি রম ও অ্যাডিশনাল গ্রাফিক্স। গ্রাহকরা চাইলে এক্সটারনাল এসডি কার্ডের মাধ্যমে সংরক্ষণ ক্ষমতা আরো বাড়াতে পারবেন। ওয়ালটনের এই নতুন টিভিতে আরো থাকবে Aptoide এর মতো জনপ্রিয় টিভি অ্যাপ স্টোর, যেখান থেকে গ্রাহকরা তাদের পছন্দমতো অসংখ্য অ্যাপ ডাউনলোড করতে পারবেন।

তিনি আরো জানান, ওয়ালটনের কম্পো-টিভির অন্যতম আকর্ষণীয় দিক হচ্ছে টাচ কন্ট্রোল ক্যাবল টিভির সুবিধা। বিল্ট-ইন এটিভি পোর্টে যেকোনো ক্যাবল কানেকশনের মাধ্যমে এটিভি দেখার সময় গ্রাহক তার পছন্দমত স্থান মার্ক/চিহ্নিত করতে পারবেন। চাইলে ডিজিটাল টিভির সংযোগও স্থাপন করতে পারবেন।

ওয়ালটনের আরঅ্যান্ডডি বিভাগের এই প্রকৌশলী আরো বলেন, ওয়ালটন কম্পো-টিভি পেইন্ট এর ক্যানভাস হিসেবে ব্যবহার করা যাবে। গ্রাহকরা বড় পর্দায় লেখার জন্য ডিজিটাল বোর্ড হিসেবে অথবা অফিসে বা বাসায় প্রেজেন্টেশনের স্ক্রিন হিসেবেও এই টিভিটি ব্যবহার করতে পারবেন।

টিভির বিল্ট-ইন ওয়াইফাই এ ইন্টারনেট কানেকশনের মাধ্যমে গ্রাহকরা অনায়াসেই বিভিন্ন সোস্যাল, কমিউনিকেশন, বিজনেস অথাব এন্টারটেইনমেন্ট অ্যাপস যেমন ফেসবুক, ভাইবার ইত্যাদি চালাতে পারবেন। ওয়েব ক্যাম এর মাধ্যমে প্রিয়জন বা গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তির সঙ্গে ভিডিও চ্যাটও করতে পারবেন বলে জানান মামনুন।
হাবিব ইফতেখার আলম বলেন, ওয়ালটনের কম্পো-টিভির স্ক্রীনে ৩ মিলিমিটার পুরুত্বের টেম্পারড গ্লাস ব্যবহার করা হয়েছে। এতে করে, টিভির ভিজ্যুয়াল ইফেক্ট আরো উন্নত হওয়ার পাশাপাশি টাচ-স্ক্রিনের দীর্ঘস্থায়ীত্ব বৃদ্ধি করেছে। এই টিভিতে এমন ধরনের স্ট্যান্ড ব্যবহার করা হয়েছে, যা ব্যবহারকারীকে তার সুবিধামত টিভি মুভিং এ সাহায্য করবে।

সাজেদুর রহমান বলেন, ওয়ালটনের নতুন মডেলের এই টিভি রিমোট, তার বা তারবিহীন মাউস ও কিবোর্ড দিয়েও পরিচালনা করা যাবে। পাশাপাশি, গ্রাহকের হ্যান্ডসেটে ইনস্টলকৃত ই-শেয়ার অ্যাপস ও টিভির বিল্ট-ইন অ্যাপস এর মধ্যে সংযোগ স্থাপন করে তার সুবিধামত- কী রিমোর্ট, টাচ রিমোট, মাউস ও এয়ার মাউস- এই চারটি ভিন্ন ফরমেটের রিমোট অপশনে টিভিটি পরিচালনা করতে পারবেন।

ওয়ালটনের নির্বাহী পরিচালক এমদাদুল হক সরকার বলেন, টেলিভিশনের বড় পর্দায় মাল্টিটাচ সুবিধার স্ক্রীন সংযোজন ওয়ালটন জন্য এক বিশাল অর্জন। এতে করে ওয়ালটনের প্রতিযোগিসক্ষমতা বহুগুণ বাড়বে। ‘মেইড ইন বাংলাদেশ’ লেখা ওয়ালটনের নিজস্ব উদ্ভাবিত, ডিজাইনকৃত ও তৈরিকৃত দেশের প্রথম বড় পর্দার মাল্টিটাচ কম্পো-টিভিটি দ্রুত গ্রাহকপ্রিয়তা পাবে।

তিনি আরো জানান, গ্রাহকদের বড় পর্দার মাল্টিটাচ কম্পো-টিভির বিশেষ দিক সম্পর্কে ধারণা প্রদান ও ব্যবহারের অসাধারণ অনুভূতি দিতে আসন্ন ঢাকা আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলায় ওয়ালটন প্যাভিলিয়নে এটি প্রদর্শন করা হবে। নতুন বছরের শুরুতে গ্রাহকদের নতুন কিছু উপহার দিতেই ওয়ালটনের এই উদ্যোগ।

তিনি আশা করেন, ‘মেইড ইন বাংলাদেশ’ লেখা ওয়ালটন কর্তৃক উদ্ভাবিত ও ডিজাইনকৃত দেশের প্রথম বড় পর্দার মাল্টিটাচ কম্পো-টিভিটি ক্রেতাদের জন্য স্থানীয় টেলিভিশন বাজারে শীগগীরই ছাড়া হবে।

মো. নিয়ামুল হক বলেন, দেশের টেলিভিশন প্রযুক্তিতে কম্পো-টিভির মতো স্মার্ট প্রযুক্তির উদ্ভাবন ওয়ালটনের জন্য এক বিশাল মাইলফলক। যুগের সাথে তাল মিলিয়ে দেশের টেলিভিশন প্রযুক্তিতে ওয়ালটনের প্রকৌশলীরা যে নিত্য নতুন প্রযুক্তি উদ্ভাবন ও সংযোজন করে যাচ্ছে, তারই প্রমাণ ওয়ালটন কম্পো-টিভি। টেলিভিশনে এরকম একটি ব্যতিক্রমী প্রযুক্তির সংযোজন করায় আরএন্ডডি প্রকৌশলীদের ধন্যবাদ জানিয়ে তিনি আশা প্রকাশ করেন, স্থানীয় বাজারে ওয়ালটন কম্পো-টিভি ব্যাপক গ্রাহক চাহিদা অর্জন করবে।

 

– সিনিউজভয়েস ডেস্ক

Please Share This Post.