দেশের আইসিটি সাংবাদিকদের আনন্দঘন মিলনমেলা

১০ ফেব্রুয়ারি শুক্রবার, বাংলাদেশ আইসিটি জার্নালিস্ট ফোরামের (বিআইজেএফ) উদ্যোগে গাজীপুরের স্প্রিং ভেলি রিসোর্টে অনুষ্ঠিত হয় ‘চড়ুইভাতি ২০১৭’। সকাল ৮টায় বিআইজেএফের কার্যালয় থেকে পিকনিক স্পটে যাত্রা শুরু করে বিআইজেএফের সদস্য ও তাদের পরিবারের সদস্যরা।

এ যেন আইসিটি সাংবাদিকদের মিলন মেলা। পিকনিক স্পটে প্রবেশের মুখে বিআইজেএফের সভাপতি মোহাম্মদ খান সহ অনান্য সদস্যরা মিলে পরিয়ে দেন ফুলের মুকুট। তারপর ডাবের পানির অভ্যর্থনা। স্প্রিং ভেলি তখন সাংবাদিকদের পদচারণায় মুখরিত হতে চলেছে। সকালের নাস্তা মিলল ডাইনিং হলে। তারপর চড়ুইভাতির অন্যতম আকর্ষণ ক্রিকেট খেলা। এর আগে আকাশী রঙের টি-শার্টে বিআইজেএফকে বুকে ধারণ করল আইসিটি সাংবাদিকরা।

গুগল, ফেসবুক, টুইটার এবং ইয়াহু এই চারটি দলে বিভক্ত হয়ে সাংবাদিকরা নামলেন ক্রিকেট যুদ্ধে। অন্যদিকে আরেকদল ভ্রমণকারী মেতেছেন সুইমিং পুলে জলের খেলায়। নীলপানিতে সাঁতরে শরীরের ব্যায়ামের সঙ্গে পানির স্পর্শ বেশ আনন্দের উপলক্ষ হয়েছিল। আর ক্যামেরাগুলোর ক্লিক ক্লিক শব্দ ছিল পুরো রিসোর্ট জুড়ে।

জুমার নামাজ শেষে গুগল এবং টুইটার ক্রিকেটের ফাইনালে। রিসোর্টে সাংবাদিকদের সঙ্গে আনন্দ ভাগ করে নিতে উপস্থিত হলেন মাইক্রোসফট বাংলাদেশ এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক সোনিয়া বশির কবির। বল হাতে নিজেও খেললেন ক্রিকেট। আরো উপস্থিত ছিলেন ডেল বাংলাদেশের কান্ট্রি ম্যানেজার আতিক রহমান, উই মোবাইলের মহা-ব্যবস্থাপক মুনতাসির আহমেদ সহ অনেকে। বিআইজেএফের ব্যাকড্রপকে পেছনে রেখে হয়ে গেল ফটোসেশন। সময়ের অভাবে ফাইনাল ম্যাচে দুই দল যৌথভাবে জয়ী।

শুরু হল মধ্যাহ্নভোজ। মজাদার খাবার শেষে শুরু হল চাকতি নিক্ষেপ, হাড়ি ভাঙার মতো মজার খেলা। শিশুদের জন্যও থাকলো খেলাধুলার ইভেন্ট। বাদ যায়নি চড়ুইভাতিতে আগত মহিলা দর্শনার্থীরাও। পিলোপাস খেলাতে তারাও দেখান নিজেদের পারদর্শিতা।

সন্ধ্যা হতেই শুরু হল চড়ুইভাতির প্রধান আকর্ষণ র‌্যাফেল ড্র ও পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠান। ক্রিকেট খেলায় যৌথভাবে চ্যাম্পিয়ন দলগুলো বুঝে নিলেন নিজেদের বিজয়ী ক্রেস্টগুলো।

বিআইজেএফ সভাপতি মোহাম্মদ খান তখন পুরস্কার মঞ্চে। তার অপূর্ব সঞ্চালনায় দর্শকদের মাতিয়ে রাখছিল। তিনি বলেন, ‘বিআইজেএফের এই চড়ুইভাতি থেকে কেউ খালি হাতে ফিরবে না। আমরা সবার জন্য উপহারের ব্যবস্থা করেছি।’

প্রথমবারের মতো আইসিটি বিভাগে কর্মরত সাংবাদিক কিন্তু বিআইজেএফের সদস্য নয় এমন সাংবাদিকরা অংশগ্রহণ করলেন লটারিতে। এই ক্যাটাগরিতে প্রথম পুরস্কার ছিল একটি ১৯ ইঞ্চি এলইডি মনিটর। দ্বিতীয় পুরস্কারেও ছিল এমনি আরেকটি মনিটর।

পিকনিকের মূল আকর্ষণ পর্ব ছিল সদস্যদের র‌্যাফেল ড্র। এই বিভাগে সর্বনিম্ন পুরস্কার ছিল ৯ হাজার ৫০০ টাকা মূল্যের একটি এয়ার কুলার এবং হুয়াওয়ের একটি ল্যাপটপ ব্যাগ। গরমে আরাম দিতে ৩৫টি এয়ার কুলার রাখা হয় পুরস্কারের সারিতে। সামনে গ্রীষ্মকাল বলে এমন পুরস্কার বেছে নেয়া হয়েছে বলে জানিয়েছে পিকনিক পরিচালনা কমিটি। এই বিভাগের মূল আকর্ষণ ছিল মোটর সাইকেল। ভাগ্যবান সাংবাদিক কালের কণ্ঠের সাব-এডিটর ইশতিয়াক মাহমুদ।

মটরসাইকেল পেয়ে তিনি নিজের অনুভূতি প্রকাশ করে বলেন, ‘মোটর সাইকেলের চেয়ে টিভি পেলে আরো ভালো হতো।’ মৃদু হাসি দিয়ে তিনি নিজের আনন্দ প্রকাশ করেন।

পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন আইসিটি তথ্য ও যোগাযোগ প্রযৃক্তি বিভাগের জনসংযোগ কর্মকর্তা মো. আবু নাসের।

চড়ুইভাতির প্লাটিনাম স্পন্সর ছিল মাইক্রোসফট। ডেল এবং উই ছিল গোল্ড স্পন্সর। সিলভার স্পন্সর ছিল স্মার্ট টেকনোলজিস (বিডি) লিমিটেড এবং ই-জেনারেশন। অন্যান্য স্পন্সর ছিল মাল্টিমিডিয়া কিংডম, এক্সেল টেকনোলজি, বিক্রয় ডটকম, ড্যাফোডিল ইউনিভার্সিটি, ডিজিকন, ঘুরব, হুয়াওয়ে, ইগলু এবং লিনেক্স।

সদস্যদের আনন্দ-হাসিতে এবং পরবর্তী বছর আরো ভালো আয়োজনের প্রত্যাশা নিয়ে শেষ হয় বিআইজেএফ চড়ুইভাতি ২০১৭।

 

– সিনিউজভয়েস ডেস্ক

Please Share This Post.