দারাজ নিয়ে এলো দারাজ ফার্স্ট গেইমস

দেশের সেরা অনলাইন মার্কেটপ্লেস এবং আলিবাবা গ্রুপের দক্ষিণ এশীয় ই-কমার্স অঙ্গ সংগঠন দারাজ চালু করল দারাজ ফার্স্ট গেইমস (ডিএফজি) নামক অভিনব একটি গেইমিং প্ল্যাটফর্ম যা রেসিং, অ্যাকশন, শুটিং এবং আর্কেড সহ বিভিন্ন ধরণের ফ্রি-টু-প্লে ক্যাজুয়াল গেইমের অ্যাক্সেস সরবরাহ করে। নতুন এই গেইমিং প্ল্যাটফর্মটি লক্ষ লক্ষ বাংলাদেশিকে ঘরে বসে সামাজিক দূরত্ব অনুশীলনকালীন অনলাইন টুর্নামেন্টের মাধ্যমে সংযোগ স্থাপনে সহায়তা করবে। এছাড়াও ডিএফজি ব্যবহারকারীদের জন্য থাকছে দারাজ ওয়ালেটে ৩৫,০০০ টাকা পর্যন্ত আকর্ষণীয় পুরস্কার এবং ভাউচার জেতার সুযোগ।

গত কয়েক মাস ধরে সামাজিক দূরত্ব অনুশীলন প্রক্রিয়াটি গেইমিং ইন্ডাস্ট্রিতে একটি অভূতপূর্ব উন্নতি এনেছে এবং ডিজিটাল অ্যাডপশনের হার বৃদ্ধির ক্ষেত্রেও উল্লখযোগ্য ভূমিকা পালন করেছে। গেইমিং অ্যাপগুলো ঘরে বসে বিনোদনের প্রধান জনপ্রিয় উৎস হয়ে উঠেছে। বাংলাদেশি গ্রাহকদের মধ্যে এ জাতীয় বিনোদনের ব্যপক আগ্রহের ফলে তাদের চাহিদা মেটাতে দেশের অনলাইন শপিং জায়ান্ট দারাজ, ভারতের শীর্ষস্থানীয় গেমিং প্ল্যাটফর্ম ফার্স্ট গেইমসের সহযোগিতায় ডিএফজি চালু করছে।

দারাজ প্রতিনিয়তই গ্রাহকেদের নতুন ধরণের অভিজ্ঞতা তৈরির জন্য উদ্ভাবনী পন্থা অবলম্বন করে যা শুধুমাত্র কেনাকাটার মধ্যেই সীমাবদ্ধ নয়। গেমিফিকেশন সেগমেন্টটি দারাজের জন্য একটি নতুন উদ্ভাবনের কেন্দ্রবিন্দু হয়ে দাঁড়িয়েছে এবং প্রতিষ্ঠানটি এই ব্যাপারে আত্মবিশ্বাসী যে ডিএফজি শীঘ্রই বাংলাদেশের একটি  শীর্ষস্থানীয় বিনোদন চ্যানেলে পরিণত হবে যেখানে প্রফেশনাল প্লেয়ার (পেশাদার) এবং ক্যাসুয়াল প্লেয়ার উভয়ই বিভিন্ন রকমের গেইম উপভোগ করতে পারবে।

ডিজিটাল গেমিফিকেশন ক্ষেত্রে সুপরিচিত পেটিএমের ফার্স্ট গেইমসের সাথে চুক্তির ফলে দারাজ এখন তাদের উন্নতমানের প্রযুক্তির অ্যাক্সেস পাবে এবং অনেক বছরের অভিজ্ঞতাকেও কাজে লাগাতে পারবে।

দারাজ হেড অফ ট্রাফিক অপারেশনস বারিশ খন্দকার বলেন- “আমাদের লক্ষ্য দারাজ ব্যবহারকারীদের জন্য সেরা গ্লোবাল গেইমগুলো আনা ও তাদের সর্বাধুনিক কম্পেটিটিভ ফর্ম্যাটগুলি সরবরাহ করা। আমরা জানি আমাদের দেশে ডিজিটাল এন্টারটেইমেন্টের চাহিদা ব্যাপক তাই আমরা নিশ্চিত করতে চাই যেন গ্রাহকরা সহজেই অ্যাক্সেস করতে পারেন। আমরা এই উদ্যোগের মাধ্যমে দেশের প্রযুক্তি শিল্পের উন্নয়নে আরও সহায়তা করতে সক্ষম হবো।

পেটিএম ফার্স্ট গেমসের সিওও সুধাংশু গুপ্ত বলেছেন, “মোবাইল গেমারদের জন্য সবচেয়ে আকর্ষণীয় এবং উদ্ভাবনী গেইম আনার মাধ্যমে সেরা অভিজ্ঞতা প্রদান করাই আমাদের লক্ষ্য। মোবাইল গেইমিং কেবল ভারতে নয়, অনেক উন্নয়নশীল দেশগুলিতে প্রসারিত হচ্ছে এবং আমরা একই যাত্রায় অংশগ্রহণকারীদের সাথে চুক্তিবদ্ধ হতে আগ্রহী। আমরা দারাজের সাথে অংশীদারিত্বের মাধ্যমে বাংলাদেশে একটি বিশ্বমানের গেমিং অভিজ্ঞতা চালু করতে পেরে রোমাঞ্চিত।

লুডো, নিনজা ডুয়ো, ফাইভ ইন অ্যা রো-এর  মতন ১৯টিরও বেশি আকর্ষণীয় ও জনপ্রিয় গেইমের মাধ্যমে ডিএফজি গেইমাররা সারা দেশ থেকে তাদের বন্ধুদের সাথে অনলাইনে টুর্নামেন্ট খেলতে পারবে এবং তাদের

ওয়ান ভার্সেস ওয়ান (1v1) মোডে চ্যালেঞ্জও করতে পারবে। বাংলাদেশি গেমারদের পছন্দের তালিকা যাচাই করে আগামী দিনে কিছু ফ্যান্টাসি গেইমও অন্তর্ভুক্ত করা হবে এই প্ল্যাটফর্মটিতে। দারাজ শীঘ্রই একটি রিডেম্পশন সেন্টার চালু করবে যেখানে গ্রাহকরা গেইমের উইনিং পয়েন্ট গুলো ব্যবহার করে  বিভিন্ন পরিসেবা গ্রহণ করতে পারবে।

 

-সিনিউসভয়েস/জিডিটি/২৯মে/২০

 

 

 

 

 

Please Share This Post.