দাম কমবে দেশী ফোনের, বাড়বে বিদেশি ফোনের

বর্তমান সরকার গুরুত্ব দিচ্ছে  হার্ডওয়্যার শিল্পে। তাই নিজেদের পণ্য তৈরি করতে আকৃষ্ট করছে। এবারের বাজেটে তারই প্রতিফলন দেখা যাচ্ছে।

অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত বৃহস্পতিবার বাজেট বক্তৃতায় বলেছেন, তথ্যপ্রযুক্তির বিকাশে মোবাইল ফোনের ভূমিকা গুরুত্বপূর্ণ। দেশে মোবাইল ফোন উৎপাদন কার্যক্রমকে উৎসাহিত করতে মোবাইল ফোন সেটকে উৎপাদন পর্যায়ে মূসক অব্যাহতি সুবিধা দিয়ে একটি আলাদা প্রজ্ঞাপন জারির প্রস্তাব করছি। এ ছাড়া স্থানীয় মোবাইল উৎপাদনের ওপর সারচার্জ অব্যাহতি সুবিধা প্রদান করে মোবাইল সেট আমদানি পর্যায়ে ২ শতাংশ সারচার্জ আরোপের প্রস্তাব করছি।

বাজেটে বলেন, দেশে যদি মোবাইল ফোন উৎপাদনের কারখানা বা কার্যক্রম চালানো হয়, তবে উৎপাদন পর্যায়ে মূসক অব্যাহতি পাওয়ার জন্য আলাদা প্রজ্ঞাপন জারি হতে পারে। এ ছাড়া স্থানীয় পর্যায়ে মোবাইল উৎপাদন করলে সারচার্জ অব্যাহতি মিলবে।

তবে আমদানি পর্যায়ে ২ শতাংশ সারচার্জ আরোপ করা হলে বিদেশ থেকে আমদানি করা ফোনের দাম বেড়ে যেতে পারে।

এর বাইরে মোবাইল ব্যাটারির চার্জারের আমদানি শুল্ক ১৫ শতাংশ বাড়ানোর প্রস্তাব করেছেন অর্থমন্ত্রী। তাই সব মিলিয়ে মোবাইল ফোনের দাম কিছুটা বাড়তে পারে।

২০১৮ সালে বাংলাদেশে স্মার্টফোনের বিক্রি আগের তুলনায় উল্লেখযোগ্য সংখ্যায় বাড়তে পারে।

সিনিউজভয়েস//ডেস্ক/

Please Share This Post.