ঢাকায় সাইবার নিরাপত্তা বিষয়ক আন্তর্জাতিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত

২৮ মে শনিবার, রাজধানীতে ‘প্রথম বাংলাদেশ ইনফরমেশন সিকিউরিটি এক্সিবিশন অ্যান্ড কনফারেন্স’ (বিআইএসইসি) শীর্ষক দিনব্যাপী এক আন্তর্জাতিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছে।

এতে দেশে সাইবার নিরাপত্তা ও ঝুঁকি ব্যবস্থাপনার ওপর, বিশেষ করে তথ্যের নিরাপত্তার বিষয়ে নিবিড় আলোচনা করা হয়। সম্মেলনে বাংলাদেশে সাইবার নিরাপত্তা সংক্রান্ত ঝুঁকি মোকাবিলায় সচেতনতা বৃদ্ধি এবং দেশের জন্য একটি নিরাপদ ও সমৃদ্ধ ডিজিটাল ভবিষ্যত বিনির্মাণের উপায় উদ্ভাবন ও সক্ষমতা অর্জনে গুরুত্ব দেওয়া হয়।

সম্মেলনে আইসিটি প্রতিমন্ত্রী জুনায়েদ আহমেদ পলক বক্তব্য উপস্থাপন করেন।

‘বাংলাদেশ ইনফরমেশন সিকিউরিটি এক্সিবিশন অ্যান্ড কনফারেন্স’ এর আহবায়ক এবং সমন্বয়ক ছিলেন স্পাইডার ডিজিটাল ইনোভেশনসের প্রধান উদ্ভাবন কর্মকর্তা কাজী মনিরুল কবির। অনুষ্ঠানে অন্যান্য মূল প্রবন্ধ উপস্থাপনকারীদের মধ্যে ছিলেন  সাইবার ম্যানেজমেন্ট অ্যালায়েন্সের প্রতিষ্ঠাতা অমর সিং এবং বহুজাতিক আইটি ফার্ম আর্নস্ট অ্যান্ড ইয়াং কানাডার সাইবার নিরাপত্তা প্রধান ও সিওরনেক্সটের উপদেষ্টা পর্ষদের পরিচালক ফাহাদ কবির।

এছাড়াও জাতীয় ও আন্তর্জাতিক পর্যায়ের অনেক বিশেষজ্ঞ ও বিশিষ্ট বক্তাদের মধ্যে ছিলেন বাংলাদেশ ব্যাংকের ডেপুটি গভর্নর ও ফিন্যান্সিয়াল ইন্টেলিজেন্স ইউনিটের (এফআইইউ) প্রধান আবু হেনা মো. রাজী হাসান, বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অব সফটওয়্যার অ্যান্ড ইনফরমেশন সার্ভিসেসের (বেসিস) সভাপতি শামীম আহসান, কাসপারস্কি ল্যাব ইউকে এর গ্লোবাল অ্যাকাউন্ট ডিরেক্টর গভর্নমেন্ট অ্যান্ড ফিন্যান্স জিতেন্দ্র কেরাই, আইবিএমের ক্লাউড অ্যান্ড সাসের প্রধান তথ্য নিরাপত্তা কর্মকর্তা ডেভিড অ্যালেন ক্যাস, কাসপারস্কি ল্যাবের দুই মূখ্য নিরাপত্তা গবেষক সের্গেই গোলোভানভ ও লিভিউ ইতোয়াফা এবং সিটিও ফোরাম বাংলাদেশের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি তপন কান্তি সরকার।

আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন আইটি বা তথ্যপ্রযুক্তি নিরাপত্তা সংক্রান্ত বিশেষজ্ঞ ও উপদেষ্টাদের সঙ্গে জ্ঞান ও ধারণা বিনিময়ের মাধ্যমে দেশে সাইবার নিরাপত্তা বিষয়ে সচেতনতা বৃদ্ধি, বিভিন্ন সমস্যার সমাধান ও ঝুঁকি ব্যবস্থাপনার সক্ষমতা অর্জনের উপায় উদ্ভাবন এবং একটি প্ল্যাটফর্ম গড়ে তোলার অভীষ্ট লক্ষ্য নিয়ে এই সম্মেলনের আয়োজন করা হয়। এ ক্ষেত্রে দেশের ভবিষ্যত নির্বিঘ্ন করতেই এমন আয়োজন।

সম্মেলনে প্রাথমিকভাবে দেশের আর্থিক খাতে সাইবার নিরাপত্তার বিষয়ে গুরুত্ব দেওয়া হয়েছে। এতে দেশীয় ও বহুজাতিক ৩৫টি ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানের ৩০০ জন উর্ধ্বতন কর্মকর্তা, আর্থিক খাত বিশেষজ্ঞ, প্রযুক্তিবিদ ও উদ্যোক্তা অংশ নেন। বাংলাদেশসহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশের প্রযুক্তিভিত্তিক প্রতিষ্ঠানের নিরাপত্তা বিশেষজ্ঞ, বিশ্লেষক ও প্রদর্শকেরা এই সেমিনারে উপস্থিত ছিলেন। সেমিনারে তথ্যপ্রযুক্তির নিরাপত্তা বিষয়ে জ্ঞান বিনিময় এবং ব্যাংকিং নিরাপত্তা নিয়ে আলোচনা করা হয়।

সম্মেলনে কাজী মনিরুল কবির বলেন, ‘আমাদের অবশ্যই বিভিন্ন খাতে সাইবার নিরাপত্তার বিষয়ে গভীর নজর দিতে হবে। সুনির্দিষ্টভাবে বলতে গেলে আমাদের আর্থিক খাতে সাইবার নিরাপত্তা নিশ্চিতকরণ ও ঝুঁকি ব্যবস্থাপনার ওপরই বেশি গুরুত্ব দিতে হবে। একই সঙ্গে এটিও নিশ্চিত করতে হবে যে আমাদের সমৃদ্ধশালী ডিজিটাল ভবিষ্যত বিনির্মাণের সক্ষমতা রয়েছে। বিআইএসইসি বা বাইসেক বিভিন্ন ব্যবসায়িক ও শিল্প খাতের সংগঠন বা প্রতিষ্ঠান এবং সরকারি সংস্থাগুলোর সঙ্গে সাইবার নিরাপত্তা নিশ্চিতকরণ এবং যেসব জায়গায় ঘাটতি আছে তা দূর করার লক্ষ্য নিয়ে ঘনিষ্ঠভাবে কাজ করে থাকে।’

সম্মেলনে আয়োজিত বিভিন্ন সেমিনারে ও প্যানেল আলোচনায় আইটি সিকিউরিটি বা তথ্যপ্রযুক্তি সংক্রান্ত নিরাপত্তা, ব্যাংকিং নিরাপত্তা, পণ্য ও সেবা বিষয়ক উপস্থাপনা, নেটওয়ার্কিংয়ের বিষয়ে জ্ঞান ও ধারণা বিনিময়ে গুরুত্ব দেওয়া হয়।

 

– সিনিউজভয়েস ডেস্ক

Please Share This Post.