ড্যাফোডিল বিশ্ববিদ্যালয়ে ইটিই অ্যালামনাই রিইউনিয়ন প্রোগ্রাম

ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির ইলেক্ট্রনিক্স অ্যান্ড টেলিকমিউনিকেশন ইঞ্জিনিয়ারিং (ইটিই) বিভাগের উদ্যোগে ৯ ডিসেম্বর, আশুলিয়ায় বিশ্ববিদ্যালয়ের স্থায়ী ক্যাম্পাসে ইটিই অ্যালামনাই হোমকামিং অ্যান্ড রিইউনিয়ন প্রোগ্রাম ২০১৭ অনুষ্ঠিত হয়েছে।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক ও প্রক্টর অধ্যাপক ড. গোলাম মাওলা চৌধুরী। ইলেক্ট্রনিক্স অ্যান্ড টেলিকমিউনিকেশন ইঞ্জিনিয়ারিং (ইটিই) বিভাগের বিভাগীয় প্রধান অধ্যাপক ড. এ. কে. এম. ফজলুল হক এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন প্রকৌশল অনুষদের ভারপ্রাপ্ত ডিন অধ্যাপক মো. খায়রুল ইনাম, মো. মিজানুর রহমান, চিফ টেকনিক্যাল অফিসার, অলিও ওয়ারলেস ইন্টারনেট, মোস্তফা হোসেন, প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা, ভয়েস টেল, মো. শামীম আহমেদ, সভাপতি, ডিআইইউ ইটিই অ্যালামনাই অ্যাসোসিয়েশন ও ইটিই অ্যালামনাই হোমকামিং অ্যান্ড রিইউনিয়ন প্রোগ্রাম ২০১৭ এর আহ্বায়ক মিস তাসনুভা আলী। অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন ইটিই বিভাগের লেকচারার সিরাজুম মুনিরা।

অনুষ্ঠানে দেশ ও জাতির কল্যানে গুরুত্বপূর্ণ অবদানের স্বীকৃতি স্বরুপ ইটিই বিভাগের ৭ জন সফল ও কৃতি অ্যালামনাইকে ‘ইটিই এক্সিলেন্স অ্যাওয়ার্ড ২০১৭’ প্রদান করা হয়। অ্যাওয়ার্ড প্রাপ্তরা হলেন ৩৪ তম বিসিএস-এ প্রশাসনিক ক্যাডারে ৭ম স্থান অধিকারী মহুয়া আফরোজ, ইস্টার্ন ব্যাংকের অ্যাসিস্ট্যান্ট ভাইস প্রেসিডেন্ট হারুন অর রশিদ, শামীম আহমেদ, ম্যানেজার, বাংলা টেল, অতুনু দেবনাথ, ম্যানেজার, অলো ইন্টারন্যাশনাল ইন্টারনেট, মেজর আল মাইমুন, কুয়েত (প্রতিরক্ষা), মো. আবু সালেহ, ভেনাস টেলিকমিউনিকেশন এবং সফল উদ্যোক্তা দবিরুল ইসলাম দীপু।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে অধ্যাপক ড. গোলাম মাওলা চৌধুরী বলেন, এ অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাক্তন ও বর্তমান শিক্ষার্থী ও শিক্ষকদের মধ্যে পারস্পরিক সম্পর্কে সেতুবন্ধন রচিত হবে। পারস্পরিক মিথস্ক্রিয়তার মাধ্যমে বিভাগের বর্তমান শিক্ষার্থীরা প্রাক্তন শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে পেশাগত জীবনে সহযোগিতা ও সহমর্মীতা পাবে বলে তিনি আশা প্রকাশ করেন।

অনুষ্ঠানের শুরুতে বিশ্ববিদ্যালয়ের সদ্য প্রয়াত প্রতিষ্টাতা উপাচার্য অধ্যাপক আমিনুল ইসলাম ও বিভাগের কৃতি শিক্ষার্থী হাসান ইমাম রাজীবের অকলি মৃত্যুতে এক মিনিট নিরবতা পালন করা হয় এবং হাসান ইমাম রাজীবের মাতা হাসিনা সাত্তারের হাতে বিভাগের শিক্ষার্থীদের একটি মানপত্র ও নগদ অর্থের চেক প্রদান করা হয়।

 

– সিনিউজভয়েস ডেস্ক

Please Share This Post.