ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটিতে দেশের প্রথম ইনোভেশন ল্যাব উদ্বোধন

শিক্ষার্থীদের উদ্ভাবনী মেধাকে জাগ্রত করার লক্ষ্যে বাংলাদেশে প্রথমবারের মতো ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির স্থায়ী ক্যাম্পাস আশুলিয়ায় ‘ইনোভেশন ল্যাব’ প্রতিষ্ঠা করা হয়েছে। গত বৃহস্পতিবার (১৯ সেপ্টেম্বর) ল্যাবটির উদ্বোধন করেন বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্রাস্টি বোর্ডের চেয়ারম্যান ড. মো. সবুর খান। এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির উপ-উপাচার্য অধ্যাপক ড. এস এম মাহবুব উল হক মজুমদার, ট্রেজারার মমিনুল হক মজুমদার, ড্যাফোডিল ফ্যামিলি প্রধান নির্বাহী মোহাম্মদ নূরুজ্জামান, বিভিন্ন অনুষদের ডিন, বিভাগীয় প্রধান, শিক্ষক, কর্মকর্তা ও শিক্ষার্থীবৃন্দ।

এই ইনোভেশন ল্যাবে মার্কেট স্পেস, রোবটিক জোন, থ্রি-ডি প্রিন্টার, আইওটি নির্ভর বৈদ্যুতিক বাল্ব, ফ্যান, শীতাতপযন্ত্র, আর্কিটেকচারাল ডিজাইন জোন, বুক রিডিং জোন, বিজনেস ইনকিউবেটর, মিটিং রুম, অ্যানড্রয়েড ও উইনডোজ সুবিধা সম্বলিত অল ইন ওয়ান টিভি ইত্যাদি রয়েছে। এসব সুবিধা ব্যবহার করে শিক্ষার্থীরা তাদের উদ্ভাবনী আইডিয়াকে বাস্তবে রূপ দান করতে পারবে।

ইনোভেশন ল্যাব উদ্বোধনের সময় ড. মো. সবুর খান বলেন, আমাদের দেশের শিক্ষার্থীরা অনেক মেধাবী। তাদের মধ্যে অনেক উদ্ভাবনী আইডিয়া রয়েছে। কিন্তু সেসব আইডিয়ার বাস্তবভিত্তিক গবেষণা ও প্রয়োগের সুযোগ তারা খুব একটা পায় না। এখন থেকে শিক্ষার্থীরা তাদের উদ্ভাবনী আইডিয়া নিয়ে এই ইনোভেশন ল্যাবে গবেষণা করতে পারবে। তাদের আইডিয়া সফলভাবে প্রয়োগ করার জন্য এখানে অনেক আধুনিক যন্ত্রপাতি ও উপকরণ রাখা হয়েছে। শিক্ষার্থীরা এই ল্যাবকে ব্যবহার করে নতুন নতুন উদ্ভাবনের মাধ্যমে দেশ ও জাতিকে উন্নত করবে বলে তিনি আশা প্রকাশ করেন।

ড. মো. সবুর খান আরো বলেন, যুক্তরাষ্ট্রের সিকিন ভ্যালি রয়েছে। আমাদের দেশে তেমন কিছু নেই। ড্যাফোডিল বিশ্ববিদ্যালয় সিলিকন ভ্যালির আদলে নলেজ ভ্যালি তৈরি করেছে। শিক্ষার্থীরা এখানে ইনোভেটিভ আড্ডার মাধ্যমে নতুন নতুন আইডিয়া উদ্ভাবন করবে। এসময় তিনি ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির এন্ট্রাপ্রেনারশিপ ডেভলপমেন্ট ফান্ড, স্টার্টআপ ফান্ড, মার্কেটিং ল্যাব ইত্যাদি সুবিধার কথা উল্লেখ করেন এবং এসব সুবিধা ব্যবহার করে নতুন নতুন উদ্ভাবনরে মাধ্যমে বাংলাদেশ বদলে দেওয়ার আহ্বান জানান।

-সিনিউজভয়েস/জিডিটি/২১সেপ্টে./১৯

 

 

Please Share This Post.