ডিজিটাল বাংলাদেশ গঠনে কাজ করে যাব: মোস্তফা রফিকুল ইসলাম

বাংলাদেশের তথ্যপ্রযুক্তি শিল্পের একজন আইকন ব্যক্তিত্ব মোস্তফা রফিকুল ইসলাম। তিনি কম্পিউটার সায়েন্সে তার বিএসসি এবং এমএসসি সম্পন্ন করেন Purdue University, USA থেকে। এরপর G.E. ক্যাপিট্যাল ক্যালিফোনিয়া এবং কম্পিউটারল্যান্ডে কর্মরত ছিলেন।

বাংলাদেশে তিনি আইটি ইনফ্রাকষ্ট্রাচার এবং সফটওয়্যার কোম্পানি ফ্লোরা টেলিকমফ্লোরা সিষ্টেমস পরিচালনা করে আসছেন। তার প্রতিষ্ঠানের প্রখ্যাত কোর ব্যাংকিং অ্যাসোসিয়েশন সফটওয়্যার ‘ফ্লোরা ব্যাংক’ দেশের কৃষি ব্যাংক, মিচুয়াল ট্রাষ্ট ব্যাংক, এনসিসিবিএল, ট্রাষ্ট ব্যাংক সহ মোট ৮টি ব্যাংকের ১০০ এরও বেশি ব্র্যাঞ্চে ব্যবহৃত হচ্ছে।

বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অব সফটওয়্যার অ্যান্ড ইনফরমেশন সার্ভিসেস (বেসিস)-এ দুটি গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব পালন করে আসছেন মোস্তফা রফিকুল ইসলাম। প্রথমত ট্রেজারার ও পরবর্তীতে সেক্রেটারি জেনারেল হিসেবে তার নেতৃত্বেই দেশের সর্ব প্রথম সফটওয়্যার ইনকিউরেটর স্থাপিত হয়। এছাড়াও তিনি বেসিস SOFTEXPO এর প্রথম কনভেনার এবং ক্রিকেটপ্রেমী সংগঠক।

ক্রিকেটের প্রতি ভালোবাসা থেকে তিনি বিপিএল ফ্রাঞ্চাইজ রংপুর রাইডারের সিংগভাগ শেয়ারের মালিক। এছাড়াও তিনি বিভিন্ন ট্রেড বড়ির প্রেসিডেন্টসহ গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব পালন করেন। তিনি দেশের শীর্ষ স্থানীয় ব্যবসায়ী সংগঠন এফবিসিসিআইয়ের জেনারেল বডির মেম্বার। তিনি BMPIA এর সাবেক প্রেসিডেন্ট এবং বর্তমানে ডিরেক্টর হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন।

এছাড়া তিনি দেশের অভিজাত ক্লাব কুর্মিটোলা গলফ ক্লাব, গুলশান ক্লাব এবং জুনিয়ার চেম্বার অব কমার্স এর সাবেক ভাইস প্রেসিডেন্ট। দেশ-বিদেশে মোস্তফা রফিকুল ইসলাম বিভিন্ন সময় বিভিন্ন অ্যাওয়ার্ড অর্জন করেন। এর মধ্যে ২০১০ সালে আমেরিকার ওয়াসিংটন ডিসিতে International Who’ who Historical Society সম্মাননা লাভ করেন।

মোস্তফা রফিকুল ইসলাম মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ঘোষিত ডিজিটাল বাংলাদেশ কার্যক্রম বাস্তবায়নের লক্ষ্যে অবিরাম কাজ করে যাচ্ছেন। তিনি মনে করেন ডিজিটাল বাংলাদেশ কার্যক্রম সফলভাবে বাস্তবায়ন হলে আমরা মধ্যম আয়ের দেশ থেকে উন্নত বাংলাদেশ হতে বেশি সময় লাগবেনা। এজন্য আমাদের প্রয়োজন তথ্য প্রযুক্তি বিষয়ক সংগঠনগুলোকে সফলভাবে নেতৃত্ব দেওয়া।

তিনি বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অব সফটওয়্যার অ্যান্ড সার্ভিসেসের (বেসিস) এর ২০১৬-২০১৯ সেশনের কার্যনির্বাহী কমিটির নির্বাচনে দ্যা চেঞ্জমেকারস প্যানেলে প্রতিদ্বন্ধিতাও করেছেন।

তিনি বলেন, ‘বেসিস এর নির্বাচনে আমাদের প্যানেল The Change Makers মেজরিটি পায়নি সত্য, কিন্তু আমরা হারিনি। আমরা বেসিস এ প্রথমবারের মতো অংশগ্রহণমূলক এবং উৎসবমুখর নির্বাচন উপহার দিয়েছি। বেসিস ভোটারগণ দুটি প্যানেল এবং স্বতন্ত্র প্রার্থীকে ভোট দেবার সুযোগ পেয়েছেন। প্রচারে-তর্কে-বিতর্কে বেসিস নির্বাচনকে একটি জাতীয় নির্বাচনের গুরুত্বে নিয়ে গিয়েছি। এই নির্বাচনকে কেন্দ্র করে অনেক নতুন বন্ধু ও শুভাকাঙ্ক্ষী পেয়েছি। বিশেষ করে আমার ইন্ডাস্ট্রির তরুণ কলিগরা আমাকে দারুণভাবে অনুপ্রাণিত করেছেন। আমি নব নির্বাচিত বেসিস বোর্ডকে অভিনন্দন জানাই। আশা রাখি নির্বাচিত সবাই মিলে মিশে আমাদের প্রাণপ্রিয় ইন্ডাস্ট্রির জন্য কাজ করবেন। জিডিটাল ব্রিগেড তাদের প্রতিশ্রুতি বাস্তবায়ন করবেন। পাশাপাশি আমাদের টিম The Change Makers এর পক্ষ থেকে বেসিসের নব নির্বাচিত পরিষদ ও প্রত্যেক সদস্যের প্রতি সব রকম সহায়তার প্রতিশ্রুতি রইলো। আমরা সব ধরনের সহযোগিতা করবো এবং গঠনমূলক সমালোচনার মাধ্যমে নির্বাচিত বোর্ডকে এগিয়ে যেতে সাহায্য করবো।’

‘আমি আন্তরিকভাবে কৃতজ্ঞতা জানাই সেসব ভোটারদের প্রতি, যারা বিভিন্ন ধরনের প্রতিবন্ধকতার মুখেও আমাদের প্রতি বিশ্বাসে অবিচল ছিলেন। আমাদের প্রতি তাদের বিশ্বাস ভোটের মাধ্যমে প্রতিফলিত করেছেন। আমি কৃতজ্ঞতা জানাই সকল গণমাধ্যম কর্মীদের, যারা আমাদের ইশতেহার ভোটারদের কাছে পৌঁছে দিয়েছেন। পাশাপাশি যেসব অনলাইন সাপোর্টার আমাদের নিঃস্বার্থভাবে সমর্থন করেছেন, তাদের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানাই।
চেঞ্জ মেকার্স এর পক্ষ থেকে বলতে চাই- আমরা আপনাদের সঙ্গে আছি, থাকবো। আমরা ইশতেহারে যা বলেছিলাম, নির্বাচিত না হয়েও তার যতটুকু সম্ভব, তা বাস্তবায়নের চেষ্টা করে যাব।’

– সিনিউজভয়েস ডেস্ক