ডিজিটাল কনটেন্ট ম্যানেজমেন্ট সফটওয়্যার (পর্ব-2)

ওয়েব কনটেন্ট ম্যানেজমেন্ট সফটওয়্যারের আরেক নাম সিএমএস (CMS)। এটি ব্যবহার করা হয় ডিজিটাল ওয়েব কনটেন্ট-এর ব্যবস্থাপনা করার জন্য। বেশির ভাগ সিএমএস ভেন্ডরই অন্যান্য প্রোগ্রামের সাথে বান্ডল্ড অবস্থায় সিএমএস সফটওয়্যার তৈরি বা প্রদান করেন, যাতে করে প্রোগ্রামাররা ওয়েব টেম্পলেট ডিজাইন ও কাস্টমাইজ করতে এবং পাবলিশিং-এর ওয়ার্কফ্লো তৈরি করতে পারেন। এসব সফটওয়্যার অত্যন্ত জনপ্রিয় এবং বিশ্বের কোটি কোটি মানুষ সিএমএস ব্যবহার করছেন। ওয়েবপেজ তৈরি, নানাধরওনের প্রচার সামগ্রী তৈরি ও বিতরণ এবং ওয়েব সাইট ব্যবস্থাপনা করার জন্যও সিএমএস দরকার। বাজারে ওপেন সোর্স ও পেইড দু ধরনের সিএমএসই রয়েছে। উভয় ধরনের সিএমএস-এই রয়েছে এক্সটেনশন এবং থিম যার সাহায্যে মডিউল, প্লাগইন, উইজেট ইত্যাদিকে যুক্ত করা যায়। আজকে জনপ্রিয় সিএমএস ওয়ার্ডপ্রেস এর সাথে পরিচিত হয়ে নিই।

ওয়ার্ডপ্রেস (WordPress)

সময়ের সেরা সিএমএস অ্যাপ্লিকেশনগুলো বিশ্লেষণ করলে অধিকাংশ সময়ই ওয়ার্ডপ্রেসকে শীর্ষস্থান দিতে হবে। এর প্রধান কারণ হচ্ছে এর কার্যকর সব ফাংশানালিটি ও ফিচার সেট। একইসঙ্গে কাস্টমার সার্ভিস ও সাপোটর্রে জন্যও এটি অপ্রতিদ্বন্দ্বী বলে বিবেচিত হয়। ওয়ার্ডপ্রেসের যাত্রা শুরু হয় সাধারণ একটি ব্লগিং সফটওয়্যার হিসেবে। তবে পরবর্তীতে এটি পরিপূর্ণভাবে কর্মক্ষম একটি সিএমএস হিসেবে আবির্ভুত হয় এবং এজন্য এর হাজার হাজার থিম, উইজেট ও প্লাগইনই মূল কৃতিত্বের দাবিদার। ওয়ার্ডপ্রেস ব্যবহার শুরু করার জন্য আপনার একটি ইমেইল ঠিকানা থাকাই যথেষ্ট, যেখানে ভেন্ডর আপনার নিজস্ব ওয়ার্ডপ্রেস.কম ঠিকানা প্রেরণ করবেন। ওয়ার্ডপ্রেস-এ আপনি সফটওয়্যার স্ক্রিপ্ট ডাউনলোড করা, নিজের ব্লগ ও ওয়েবসাইট তৈরির নানা কাজ নির্ঝঞ্ঝাটে সারতে পারবেন। এরপর আপনার সাইটটিকে কোনো ওয়েব হোস্টিং সার্ভিসের মাধ্যমে হোস্ট করতে হবে, যেজন্য ওয়ার্ডপ্রেস.কম-এর সেবাও গ্রহণ করতে পারেন যেখানে আপনার নতুন নতুন ব্লগকে বিনামূল্যে হোস্ট করার ব্যবস্থা আছে।

সিনিউজভয়েস/

 

Please Share This Post.