ডিআইইউতে আন্তর্জাতিক নারী দিবস পালিত

নানা আয়োজনের মধ্য দিয়ে গতকাল সোমবার (৮ মার্চ) আন্তর্জাতিক নারী দিবস পালন করেছে ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি। দিবসটি উপলক্ষে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রতিটি নারী কর্মীকে ফুল ও চকলেট দিয়ে শুভেচ্ছা জানানো হয়। এছাড়া বিশ্ববিদ্যালয়ের ভেরিফায়েড ফেসবুক পেজ থেকে ‘কর্মক্ষেত্রে জয়তু নারী’ শীর্ষক একটি আলোচনা অনুষ্ঠিত হয়।
দিনের শুরুতে নারী কর্মীদের ফুলের শুভেচ্ছা জানান মানবিক ও সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদের ডিন অধ্যাপক এ এম এম হামিদুর রহমান, ব্যবসায় ও উদ্যোক্তাবৃত্তি অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ মাসুম ইকবাল, ইন্টারন্যাশনাল অ্যাফেয়ার্সের উর্ধ্বতন সহকারী পরিচালক সৈয়দ রায়হানুল ইসলাম প্রমুখ। এরপর রাত আটটায় ‘কর্মক্ষেত্রে জয়তু নারী’ শীর্ষক আলোচনায় অংশ নেন মানবিক ও সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদের সহযোগী ডিন অধ্যাপক ড. ফারহানা হেলাল মেহতাব, ইংরেজি বিভাগের বিভাগীয় প্রধান ড. লিজা শারমিন, ব্যবসায় প্রশাসন বিভাগের সহযোগী প্রধান ড. খাদিজা রহমাস তানচি এবং স্টুডেন্টস অ্যাফেয়ার্সের প্রশাসনিক কর্মকর্তা ফাহমি হাসান।
আলোচনা অনুষ্ঠানে অধ্যাপক ড. ফারহানা হেলাল মেহতাব বলেন, কর্মজীবী নারীরা নিজেদের মধ্যে দুটি সত্তার ধারণ করেন। একটি কর্মক্ষেত্রে, অন্যটি গৃহে। এই দুই সত্তার ভারসাম্য রক্ষা করেই একজন কর্মজীবী নারীকে সামনে এগিয়ে যেতে হয়। নিজের অভিজ্ঞতা বর্ণনা করে তিনি বলেন, জীবনে অনেক চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা করতে হয়েছে। সব সময় চেষ্টা করেছি গুরুত্ব বুঝে কাজ করার। যখন মনে হয়েছে পিএইচডি করার চেয়ে সন্তান লালন করা বেশি গুরুত্বপূর্ণ তখন অনায়াসে পিএইচডির সুযোগ ছেড়ে দিয়েছি। সেই পিএইচডি করেছি সতের বছর পর। আবার যখন মনে হয়েছে চাকরি করাটা জরুরি নয় তখন এক মুহূর্তেই চাকরি ছেড়ে দিয়েছি। নারীদেরকে এভাবে অনেক কিছুর সঙ্গে ভারসাম্য রক্ষা করে চলতে হয়। এসময় তিনি নারীদেরকে বাধা পেরিয়ে সামনে এগিয়ে যাওয়ার আহ্বান জানান।
উল্লেখ্য, প্রতিবছর ৮ মার্চ বিশ্বব্যাপী আন্তর্জাতিক নারী দিবস পালিত হয়। লিঙ্গ সমতার উদ্দেশ্যে বাংলাদেশসহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশে এই দিনটি বিশেষ গুরুত্বে¡র সঙ্গে পালন করা হয়। বিশ্বব্যাপী নারীদের প্রতি শ্রদ্ধা, তাদের কাজের প্রশংসা এবং ভালোবাসা প্রকাশের পাশাপাশি অর্থনৈতিক, রাজনৈতিক ও সামাজিক সাফল্য উদযাপনের উদ্দেশ্যে নানা আয়োজনে পালিত হয় এই দিনটি। ১৯৭৫ সালে ৮ মার্চ দিনটিকে আন্তর্জাতিক নারী দিবসের স্বীকৃতি দেয় জাতিসংঘ। সেই থেকে বিশ্বব্যাপী দিবসটি পালিত হয়ে আসছে। এবারের আন্তর্জাতিক নারী দিবসের প্রতিপাদ্য- ‘করোনাকালে নারী নেতৃত্ব, গড়বে নতুন সমতার বিশ্ব’।

Please Share This Post.