ডব্লিউএসআইএস পুরস্কার প্রাপ্তিতে হ্যাট্রিক করল বাংলাদেশ

তথ্যপ্রযুক্তি খাতে অত্যন্ত মর্যাদা সম্পন্ন পুরস্কার হিসেবে বিবেচিত জাতিসংঘের ‘ওয়ার্ল্ড সামিট অন দ্য ইনফরমেশন সোসাইটি (ডব্লিউএসআইএস)’ অ্যাওয়ার্ড বিগত দুই বছরের মতো এ বছরও পেয়েছে বাংলাদেশ।

পরপর তিনবার তথ্যপ্রযুক্তি খাতে বিশ্বের সবচেয়ে সন্মানজনক ডব্লিউএসআইএস অ্যাওয়ার্ড লাভের মাধ্যমে হ্যাট্রিকের গৌরব অর্জন করলো বালাদেশ।

প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের অ্যাকসেস টু ইনফরমেশন (এটুআই) প্রোগ্রামের হাত ধরে তৃতীয়বারের মতো এই আন্তর্জাতিক সন্মাননা পেল বাংলাদেশ। জাতিসংঘের তথ্যপ্রযুক্তি সংক্রান্ত বিশেষায়িত সংস্থা আন্তর্জাতিক টেলিকমিউনিকেশন ইউনিয়নের (আইটিইউ) সদর দপ্তর সুইজারল্যান্ডের জেনেভায় ৪ মে বুধবার, ‘ডব্লিউএসআইএস অ্যাওয়ার্ড-২০১৬’ পুরস্কারের জন্য বাংলাদেশের ৫টি প্রকল্পের প্রকল্পের নাম ঘোষণা করা হয়।

Bnnrc

বিএনএনআরসি

এ বছর বাংলাদেশ এনজিও’স নেটওয়ার্ক ফর রেডিও অ্যান্ড কমিউনিকেশন (বিএনএনআরসি)-এর নারী সাংবাদিকদের নিয়ে একটি উদ্যোগ এবং এটুআই প্রোগ্রামের ৪টি উদ্যোগ সন্মানজনক ‘ডব্লিউএসআইএস অ্যাওয়ার্ড-২০১৬’ এর চূড়ান্ত পর্বে চ্যাম্পিয়ন হওয়ার গৌরব অর্জন করেছে।

এটুআই এর উদ্যোগগুলো যথাক্রমে, ‘সেবা পদ্ধতি সহজিকরণ-এসপিএস (ক্যাটাগরি-০৬)’, ‘পরিবেশ অধিদপ্তরের অনলাইন ছাড়পত্র (ক্যাটাগরি-০৭)’, ‘শিক্ষক বাতায়ন (ক্যাটাগরি-০৯)’ এবং ‘কৃষকের জানালা (ক্যাটাগরি-১৩)’।

জেনেভায় ডব্লিউএসআইএস অ্যাওয়ার্ড-২০১৬ পুরস্কার গ্রহণ করেন বাংলাদেশ সরকারের ডাক ও টেলিযোগাযোগ প্রতিমন্ত্রী তারানা হালিম (এমপি), প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের অ্যাকসেস টু ইনফরমেশন প্রোগ্রামের পলিসি অ্যাডভাইজার আনীর চৌধুরী, এটুআই’র ডোমেইন স্পেশালিস্ট মো. লুতফর রহমান এবং এটুআই’র ডিরেক্টর (ইনোভেশন) মো. মোস্তাফিজুর রহমান।

উল্লেখ্য, ২০১৪ সালে এটুআইয়ের প্রকল্প ‘ডিজিটাল সেন্টার’ এর জন্য এবং ২০১৫ সালে এটুআইয়ের প্রকল্প ‘জাতীয় তথ্য বাতায়ন’ এর জন্য বাংলাদেশ ডব্লিউএসআইএস পুরস্কার অর্জন করে।

 

– সিনিউজ ভয়েস ডেস্ক

Please Share This Post.