টেলিনর এর ফ্রি হেলথ সেবা

বিশ্ব উচ্চরক্তচাপ দিবস উদযাপনে দেশজুড়ে পাঁচ দিনব্যাপী বিশেষ  স্বাস্থ্য বিষয়ক প্রচারণা শুরু করেছে টেলিনর হেলথ। উচ্চরক্তচাপ বিষয়ে মানুষকে জানাতে ও এ বিষয়ে তাদের মধ্যে সচেতনতা বৃদ্ধি করাই এ প্রচারণার মূল লক্ষ্য।উচ্চরক্তচাপই থেকেই হৃদরোগের মূল ঝুঁকি, তাই, এ বিষয়ে সচেতনতা তৈরিতে এ বছরের প্রতিপাদ্য নির্ধারণ করা হয়েছে  নিজের রক্তচাপের মাত্রা জানুন। নিজের রক্তচাপের মাত্রা জানার গুরুত্ব সম্পর্কে সচেতন করে তুলতেই এ প্রতিপাদ্য নির্ধারণ করা হয়েছে।

স্ট্রোক, হার্ট অ্যাটাক ও কিডনি রোগের অন্যতম কারণে হচ্ছে উচ্চ রক্তচাপ। উচ্চ রক্তচাপের কারণে ডিমেনশিয়া বা স্মৃতিভ্রংশও ঘটতে পারে। উচ্চরক্তচাপের উপসর্গ আলাদা করে টের পাওয়া কঠিন বলে অনেকেই হার্ট অ্যাট্যাক কিংবা স্ট্রোক হওয়ার পরই টের পেয়ে থাকেন যে তাদের উচ্চরক্তচাপ সমস্যা ছিলো। এর আগে এ সমস্যায় ভুওগলেও তারা এ বিষয়ে সচেতন না।

এ প্রচারণার সফল বাস্তবায়নে টনিক ইতোমধ্যেই গত ১৩ মে থেকে ১৭ মে পর্যন্ত বিভিন্ন চ্যানেলের সমন্বয়ে এক হাজারের বেশি সফল উচ্চরক্তচাপ পরিক্ষা সম্পন্ন করেছে।রাজধানীর মোহাম্মদপুর, ধানমন্ডি ২৭, ধানমন্ডি ৩২, টোকিও স্কয়ার (মোহাম্মদপুর), মিরপুর ১ ও মিরপুর ২-এ এ প্রচারণা কার্যক্রম অনুষ্ঠিত হয়। এছাড়া, ঢাকার বাইরেও আয়োজন করা হয়েছে এ বিশেষ স্বাস্থ্য বিষয়ক প্রচারণা।

এ দিবসের গুরুত্ব সম্পর্কে টেলনর হেলথের প্রধান বাণিজ্যিক কর্মকর্তা অ্যান্ড্রু স্মিথ বলেন,বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার মতে ২০০২ সালে বিশ্বের সবচেয়ে প্রাণঘাতী ব্যাধি হিসেবে উচ্চরক্তচাপের অবস্থান সবার ওপরে। দায়িত্বশীল সংস্থা হিসেবে এ ব্যাধিকে নিয়ন্ত্রণে আনতে আমরা নিজেদের দায়বদ্ধ মনে করে উচ্চরক্তচাপ নিয়ে গণসচেতনতা তৈরি করতেই এ প্রচারণার আয়োজন করেছি। এ প্রচারণা সংশি­ষ্ট সকলেই আমি ধন্যবাদ জানাই এবং উচ্চরক্তচাপের বিরুদ্ধে আমাদের এ লড়াই অব্যাহত রাখতে পারবো বলে আমরা আশাবাদী।
বিশ্বের ৮৫টি উচ্চরক্তচাপ সোসাইটি ও লীগের সমন্বয়ে প্রতিষ্ঠিত ওয়ার্ল্ড হাইপারটেনশন লীগ (ডবি­উএইচএল) প্রতিবছর বিশ্ব উচ্চরক্তচাপ দিবস পালন করে।

-সিনিউজভয়েস/জিডিটি/১৯মে/১৯