জিওমি রেডমি২: চমক জাগানো স্মার্টফোন

বেশ কয়েকটি দারুন ফিচারের স্মার্টফোন বাজারে এনে চমক জাগিয়েছে জিওমি। বাজারের শীর্ষস্থানীয় ফোন কোম্পানির তালিকায় নিজের জায়গাটাও করে নিয়েছে এ ব্র্যান্ডটি। অন্যান্য স্মার্টফোন প্রস্তুতকারক প্রতিষ্ঠানের তুলনায় প্রায় অর্ধেক দামের ডিভাইসে প্রিমিয়াম লেভেলের কনফিগারেশন দেওয়ার জন্যই মূলত এটা সম্ভব হয়েছে। চলতি বছরও চীনের অ্যাপল নামে পরিচিত এই কোম্পানি ভালো কনফিগারেশনের এক হ্যান্ডসেট নিয়ে এসেছে, তাও সাশ্রয়ী দামে। ফোনটি দুটি সংস্করণে পাওয়া যাচ্ছে। এর মধ্যে একটি ৮ গিগাবাইট ইন্টারনাল মেমোরি ও ১ গিগাবাইটের র‌্যামের এবং অপরটি ১৬ গিগাবাইট ইন্টারনাল মেমোরি ও ২ গিগাবাইট র‌্যামের।

ডিজাইন: ফোনটি বেশ হালকা, ওজন মাত্র ১৩৩ গ্রাম। পুরো বডিই প্লাস্টিক দিয়ে তৈরি। ডিসপ্লেতে সর্বশেষ সংস্করণ গরিলা গ্লাস ৩ এর বদলে গরিলা গ্লাস ২ ব্যবহার করা হয়েছে। অন্যদিকে পেছনের কভার রিমুভেবল অর্থাৎ চাইলে পরিবর্তন করা সম্ভব। ডুয়েল সিমের ফিচারও থাকছে এই ফোনে। বর্তমানে বাজারে কালো, সাদা হলুদ, গোলাপি এবং সবুজ রংয়ের এ মডেলে ফোন পাওয়া যাচ্ছে।
ডিসপ্লে: এর ডিসপ্লেতে ১২৮০*৭২০ পিক্সেল রেজ্যুলেশন এবং ৩১২ পিপিআই পাওয়া যাবে। ডিসপ্লে যথেষ্ট শার্প এবং ভিউ অ্যাঙ্গেলও ভালো। ডিসপ্লে আরও আকর্ষণীয় করার জন্য সেটিংসে ওয়ার্ম, স্ট্যান্ডার্ড এবং কুল নামের কাস্টমাইজেশন রয়েছে। এটা দিয়ে ডিসপ্লের স্যাচুরেশন বাড়িয়ে-কমিয়ে মনমতো করে নেয়া যাবে।
Xiaomi redmi-2_s
পারফরমেন্স: এতে কোয়াড কোর ১.২ গিগাহার্জ কর্টেক্স এ৫৩ প্রসেসর ব্যবহার হয়েছে। কিন্তু র‌্যাম ১ গিগাবাইট হওয়াতে ডিভাইসটি দ্রুতগতিতে পারফর্ম করতে পারে না। ফোনটির ২ জিবি র‌্যাম ব্যবহারে আরও ভালো পারফরমেন্স পাওয়া যাবে। তবে এতে মাত্র ৮ গিগাবাইট ইন্টারনাল মেমোরি থাকছে। অবশ্য মেমোরি কার্ড দিয়ে ৬৪ জিবি পর্যন্ত বাড়ানো যাবে।
ব্যাটারি: এর ২২০০ মিলিঅ্যাম্পিয়ার ব্যাটারি অধিক ব্যবহারেও সারাদিন চার্জ ধরে রাখবে।
Xiaomi redmi-2_04
ক্যামেরা: ৮ মেগাপিক্সেল আজকের দিনে কম মনে হলেও বাস্তবে প্রায় ১৩ মেগাপিক্সেলের মতই উজ্জ্বল এবং কালারফুল ছবি দেবে। সামনের ২ মেগাপিক্সেলও দাম হিসেবে বেশ ভালো।
দাম: ১৩ হাজার ৭০০ টাকা।

সিনিউজভয়েস/ডেস্ক

Please Share This Post.