জাপানে বাড়ছে বাংলাদেশীদের চাকুরী ও শিক্ষার সুযোগ

বাংলাদেশের কাছে জাপান সূর্যোদয়ের দেশ বলেই পরিচিত। তবে সারাবিশ্ব জাপান কে তথ্য প্রযুক্তিতে উন্নত ও অর্থনৈতিকভাবে সমৃদ্ধ দেশ বলেই চেনে। বিশ্ব অর্থনীতিতে জাপানের অবস্থান ৩য়। কিন্তু গত একদশক ধরে ক্রমাগত হারে জনসংখ্যার নিন্মগতি জাপানের অর্থনীতির জন্য মারাত্ত্বক হুমকি হিসেবে দাড়িয়েছে।

বিশ্ব জনসংখ্যা রিভিউইয়ের রিপোর্ট অনুযায়ী, ২০১০ সালে জাপানের জনসংখ্যা ছিল ১২ কোটি ৭৫ লক্ষ যা ২০১৫ সালের আগস্ট পর্যন্ত দাড়িয়েছে ১২ কোটি ৬৫ লক্ষ তে। গত ৫ বছরেই কমে গেছে প্রায় ১০ লক্ষ লোক। পরিসংখ্যান টি আরও বলছে প্রতিদিন জন্ম নিচ্ছে ১৩,৯৩২ জন শিশু কিন্তু তার বিপরীতে প্রতিদিন মারা যাচ্ছে ১৮,৫৫২ জন মানুষ। এই পরিসংখ্যানই বলে দিচ্ছে কতটা মারাত্বক হয়ে দাড়িয়েছে এই জনসংখ্যা সমস্যা টি। এছাড়া প্রতিনিয়ত বাড়ছে বয়স্ক লোকের সংখ্যা। এমতবস্থায় জাপানের এই অর্থনীতিকে দীর্ঘ মেয়াদে ধরে রাখার মত জনসংখ্যা জাপানের কাছে নেই। এই চলমান পরিস্থিতি কে মোকাবেলা করতে জাপান সরকার উদ্যোগ নিয়েছে তৃতীয় বিশ্বের দেশগুলো থেকে সম্ভাবনাময় দক্ষ জনশক্তি কে জাপানে চাকুরী ও শিক্ষা অর্জনে উৎসাহিত করতে।

এই দেশগুলোর তালিকার মধ্যে রয়েছে ভিয়েতনাম, বাংলাদেশ, ভারত, মালয়েশিয়া, নেপাল, ফিলিপাইনের নাম। জাপানের গ্লোবাল ৩০ ভিশন অনুযায়ী” জাপান বিশ্বের বিভিন্ন দেশ থেকে প্রায় ৩ লক্ষ আন্তঃজার্তিক স্টুডেন্ট নেবে। এই সুযোগ বাংলাদেশের জন্য অপার সম্ভাবনার দ্বার খুলে দিয়েছে।

সিনিউজভয়েস/ডেক্স

Please Share This Post.