জাতীয় হাইস্কুল প্রোগ্রামিং প্রতিযোগিতার অ্যাক্টিভেশন শুরু

ঢাকা: জাতীয় হাইস্কুল প্রোগ্রামিং প্রতিযোগিতার অ্যাক্টিভেশন কার্যক্রম শুরু হয়েছে। তারই ধারাবাহিকতায় বুধবার রাজধানীর বেইলি রোডে অবস্থিত ভিকারুননিসা নূন স্কুল এন্ড কলেজে অ্যাক্টিভেশন কার্যক্রমের উদ্বোধন করা হয়।

এছাড়া একইদিনে সিরাজগঞ্জ জেলায় ৬টি, ঝিনাইদহ জেলায় ৭টি, টাঙ্গাইল জেলায় ৩টি ও কুমিল্লা জেলায় ৮ স্কুলে জাতীয় হাইস্কুল প্রোগ্রামিং প্রতিযোগিতার অ্যাক্টিভেশন কার্যক্রম অনুষ্ঠিত হয় । সারা দেশে মোট ১ হাজারটি হাইস্কুলে অ্যাক্টিভেশন কার্যক্রম অনুষ্ঠিত হবে।

অ্যাক্টিভেশন কার্যক্রমে প্রথম অনুষ্ঠানে ভিকারুরনিসা নূন স্কুল অ্যান্ড কলেজের অধ্যক্ষ মোছা. সুফিয়া খাতুনের সভাপত্বিতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগ ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্য-প্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের সহকারী সচিব আর এইচ এম আলাউল কবির, বাংলাদেশ ওপের সোর্স নের্টওয়ার্কের (বিডিওএসএন) সাধারণ সম্পাদক মুনির হাসান, রবি আজিয়াটা লিমিটেডের জেনারেল ম্যানেজার, কর্পোরেট অ্যাফের্য়াস ইনামুল্লাহ সাঈদ, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কম্পিউটার বিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষক হাসনাইন হেইকেল এবং কিশোর আলো’র নির্বাহী সম্পাদক সিমু নাসের।

এই সময় মোছা. সুফিয়া খাতুন বলেন, শুরু বিজ্ঞান নয়, যে কোনো বিভাগের শিক্ষার্থীরাই প্রোগ্রামিং শিখতে ও করতে পারবে। এই আয়োজনের সারা দেশের শিক্ষার্থীদের অধিক অংশগ্রহনে সফল করতে হবে। তাহলে দেশ প্রযুক্তি ক্ষেত্রে এগিয়ে যাবে।

মুনির হাসান বলেন, বিশ্বের সঙ্গে তাল মিলিয়ে চলতে হবে আমাদের প্রযুক্তির ভাষা জানতে হব। শিক্ষার্থীদের প্রযুক্তির সঙ্গে থাকতে হবে, নিজের মেধা দিয়ে প্রযুক্তিকে এগিয়ে নিতে হবে। তিনি বলেন, প্রোগ্রামিং মাধ্যমে বিশ্বের অন্যদের সঙ্গে আমাদের প্রযুক্তি প্রতিযোগিতা করে এগিয়ে যেতে হবে।

আর এইচ এম আলাউল কবির বলেন, বর্তমান যুগ প্রযুক্তির। প্রযুক্তিকে আপন করে নিতে না পারলে পিছিয়ে পরতে হবে। প্রত্যেকটি ক্ষেত্রেই প্রযুক্তির ব্যবহার বৃদ্ধি পাচ্ছে। তিনি বলেন, বর্তমান সরকার বাংলাদেশকে ডিজিটাল দেশ হিসেবে গড়ে তোলার জন্য বিভিন্ন পদক্ষেপ গ্রহন করেছে।

দেশের হাইস্কুলের শিক্ষার্থীদের কম্পিউটার প্রোগ্রামিং-এর প্রতি আগ্রহী করে তোলা এবং তাদের দক্ষতা বৃদ্ধির জন্য গত বছর থেকে এই আয়োজন শুরু করেছে সরকারের তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগ। প্রতিযোগিতায় প্রোগ্রামিং ছাড়াও আইসিটি কুইজও অন্তর্ভুক্ত থাকবে। ৬ষ্ঠ থেকে দ্বাদশ শ্রেণী এবং পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটের ৪র্থ সেমিস্টার পর্যন্ত শিক্ষার্থীদের জন্য এবার ১৬টি আঞ্চলিক প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হবে। এই প্রোগ্রামিং প্রতিযোগিতা হবে অনলাইন জাজিং প্ল্যাটফর্ম কোডমার্শালে (www.codemarshal.org)।

সিনিউজভয়েস/ডেক্স