জাতিসংঘ শিক্ষা সম্মেলনে শিক্ষার্থী স্বস্তিকার অংশগ্রহন

জাতিসংঘ শিক্ষা সম্মেলনে প্রথম বাংলাদেশি বালিকা হিসেবে যোগ দিয়েছে ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল স্কুলের ক্ষুদে শিক্ষার্থী স্বস্তিকা গার্গি চক্রবর্তী। প্রতি বছরের ন্যায় এবারও গত ২৮-৩০ মার্চ জাতিসংঘের সদর দফতর নিউইয়র্কে অনুষ্ঠিত হয়েছে ‘গ্লোবাল ক্লাসরুম ইন্টারন্যাশনাল মডেল ইউনাইটেড নেশনস প্রোগ্রাম (জিসিআইমুন)’ শীর্ষক এ সম্মেলন।

সম্মেলনটিতে স্বস্তিকা গার্গি ‘মধ্যম পর্যায়’ ক্যাটাগরিতে (পঞ্চম শ্রেণি-অষ্টম শ্রেণি) প্রথমবারের মতো বাংলাদেশের প্রতিনিধিত্ব করেছে। সে ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল স্কুলের (ইংরেজি মাধ্যম) পঞ্চম গ্রেডে পড়ছে।

সুপ্রিয় কুমার চক্রবর্তী ও অনুসূয়া চক্রবর্তী দম্পতির একমাত্র কন্যা স্বস্তিকা গার্গি চক্রবর্তী নিজের অনুভূতি ব্যাক্ত করতে গিয়ে বলে, ‘আমি অত্যন্ত খুশি এবং রোমাঞ্চ অনুভব করছি। জাতিসংঘে নিজের দেশের প্রতিনিধিত্ব করেছে। এটি নিঃসন্দেহে একটি বড় অর্জন।’

সে আরও বলে, সম্মেলনটি অনুষ্ঠিত হয়েছে জাতিসংঘের অধিবেশনের আদলে। অধিবেশনে জাতীয় ও আন্তর্জাতিক নানা সমস্যা নিয়ে আলোচনা করতে হবে। সে জন্য নিজেকে প্রস্তুত করেছিলাম। আমি বিশ্বাস করি এটি আমার ভবিষ্যৎ ক্যারিয়ারের স্বপ্ন পূরণে সহায়তা করবে।

সম্মেলনে গার্গি হাইতির পক্ষে কথা বলেছিল। দেশটির নানা সমস্যা উত্থাপন করেছে অধিবেশনে। সে জন্য হাইতি সম্পর্কে তাকে পড়াশোনা করতে হয়েছিল বলে জানায় গার্গি।

বিশ্বের ২৮টি দেশের ৫০ হাজার উচ্চবিদ্যালয় ও ২৫০টি প্রাথমিক বিদ্যালয় থেকে ৪০০০ শিক্ষার্থী এই সম্মেলনে অংশগ্রহণ করছে। জিসিআইমুন লেবানিস আমেরিকান ইউনিভার্সিটির একটি কার্যক্রম যেটি ১৫ বছর ধরে ইউনাইটেড নেশনস অ্যাসোসিয়েশন অব দ্য ইউনাইটেড স্টেটস অব আমেরিকা (ইউএনএ-এইএসএ) পরিচালনা করছে।

-সিনিউজভয়েস/জিডিটি/০৩এম/১৯

Please Share This Post.