জাতিসংঘের ই-কমার্স উইকে ই-ক্যাব ও সরকারের প্রতিনিধিদল

২৪ এপ্রিল থেকে সুইজারল্যান্ডের জেনেভায় ‘ইউনাইটেড নেশনস কনফারেন্স অন ট্রেড অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট’ (আঙ্কটাড) এর উদ্যোগে ‘আঙ্কটাড ই-কমার্স উইক ২০১৭’ উদযাপন শুরু হয়েছে, যা আগামীকাল ২৮ এপ্রিল পর্যন্ত চলবে।

ই-কমার্স অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (ই-ক্যাব) এর উদ্যোগে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের ডব্লিউটিএ সেল এর মহাপরিচালক মো. মুনির চৌধুরির নেতৃত্বে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়, অর্থ মন্ত্রণালয়, বাংলাদেশ ব্যাংক, ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগের প্রতিনিধি, ই-ক্যাব উপদেষ্টা শমী কায়সার সহ মোট ৮-সদস্য বিশিষ্ট একটি বাংলাদেশ প্রতিনিধিদল উক্ত ইভেন্টে অংশগ্রহণ করেছে।

২৬ এপ্রিল সকাল  ১০টায় অনুষ্ঠিত ‘স্পেশাল সেশন অন অ্যাসেজিং ই-ট্রেড রেডিনেস অব দ্য লেস্ট ডেভেলপড কান্ট্রিজ’ শীর্ষক সেশনে ই-ক্যাব এবং বাংলাদেশ প্রতিনিধিদলের পক্ষ থেকে প্যানেলিস্ট হিসেবে ই-ক্যাব এর উপদেষ্টা শমী কায়সার বাংলাদেশের ই-কমার্স এর বর্তমান প্রেক্ষাপটের ওপর ই-ক্যাব কর্তৃক প্রস্তুতকৃত ‘রিপোর্ট অন ই-কমার্স ইন বাংলাদেশ’ শীর্ষক একটি প্রতিবেদন ‘কান্ট্রি পেপার’ উপস্থাপন করেন।

ecab1

এছারাও ইভেন্টে অংশগ্রহণ করেন বাংলাদেশ কম্পিটিশান কমিশনের ডেপুটি সেক্রেটারি মো. খালিদ আবু নাসের, বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের ডব্লিউটিএ সেল এর ডিরেক্টর মো. হাফিজুর রহমান, ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রণালয়ের ডেপুটি সেক্রেটারি মো. আবু মমতাজ সাদু উদ্দিন আহমেদ, অর্থ মন্ত্রণালয়ের জ্যেষ্ঠ সচিবের ব্যক্তিগত সচিব সৈয়দ মোহাম্মদ কাওসার হোসেন, বাংলাদেশ ব্যাংকেরডেপুটি জেনারেল ম্যানেজার মো. আবদুল মান্নান, ই-ক্যাব এর ইপেমেন্ট অ্যান্ড ট্রাঞ্জেকশান স্ট্যান্ডিং কমিটির চেয়ারম্যান আশিস চক্রবর্তী।

‘টুওয়ার্ডস ইনক্লুসিভ ই-কমাস’ এ বছরের ই-কমার্স সপ্তাহের মূল প্রতিপাদ্য। বিভিন্ন দেশের সরকারি প্রতিনিধি, বিখ্যাত ই-কমার্স উদ্যোক্তা, সুশীল সমাজের প্রতিনিধি, ই-কমার্স সংগঠন এবং তরুণ ই-কমার্স উদ্যোক্তাগণ এ ইভেন্টে অংশগ্রহণ করেছেন। এ ইভেন্টের আলোচ্যসূচি অনুযায়ী, ই-কমার্সের সঙ্গে উন্নয়নশীল দেশসমূহের অন্তর্ভুক্তির প্রয়োজনীয়তা, উপকারিতা, প্রতিবন্ধকতাসমূহ ও তা নিরসনে করণীয়, পলিসিগত সহায়তা, ডেলিভারি চ্যানেল ও অবকাঠামোগত সুবিধা নিশ্চিতকরণের সহজ উপায়সহ বিভিন্ন বিষয়ে দিকনির্দেশনামূলক বিস্তারিত আলোচনা চলমান রয়েছে।

এছাড়া ২৫ এপ্রিল, বিভিন্ন দেশের মন্ত্রী ও অন্যান্য স্টেকহোল্ডার যেমন আঙ্কটাড এর মহাসচিব, আলিবাবা এর কর্ণধার জ্যাকমা, ওয়ার্ল্ড ট্রেড অর্গানাইজেশন এর মহাপরিচালক রবার্তো আজেভেদো, কনজ্যুমার ইন্টারন্যাশনাল এর মহাপরিচালক আমান্ডালং প্রমুখের এর অংশগ্রহণে ‘ডিজিটাল ট্রান্সফরমেশন ফর অল : এমপাওয়ারিং এন্টারপ্রেনার্স অ্যান্ড স্মল বিজনেস’ শীর্ষক একটি উচ্চ পর্যায়ের মিথষ্ক্রিয় ডায়ালোগ অনুষ্ঠিত হয়। এ ডায়ালোগে ডিজিটাল বিল্পব কর্তৃক সৃষ্ট পরিবর্তনশীল বিশ্ব অর্থনীতির সঙ্গে সম্পৃক্ত হওয়ার উপায় সম্পর্কে গঠনমূলক ও দিকনির্দেশনামূলক আলোচনা করা হয়েছে। ই-ক্যাব সম্প্রতি বিজনেস ফর ইট্রেড ডেভেলপমেন্ট কাউন্সিল এর সদস্য পদ লাভ করে।

‘আঙ্কটাড ই-কমার্স উইক ২০১৭’-এ অংশগ্রহণ করার মাধ্যমে বাংলাদেশের প্রতিনিধিদল অংশগ্রহণকারী বিভিন্ন দেশের প্রতিনিধি, বিখ্যাত ই-কমার্স উদ্যোক্তা, সুশীল সমাজের প্রতিনিধি, ই-কমার্স সংগঠন এবং তরুণ ই-কমার্স উদ্যোক্তাগণ এর নিকট থেকে ই-কমার্স সংশ্লিষ্ট বিষয়াদি, উপকারিতা, প্রতিবন্ধকতাসমূহ ও তা নিরসনে করণীয়, পলিসিগতসহায়তা, ডেলিভারি চ্যানেল ও অবকাঠামোগত সুবিধা নিশ্চিতকরণের সহজ উপায়সহ বিভিন্ন বিষয়ে দিকনির্দেশনা এবং আন্তর্জাতিক ব্যবস্থা ও সংশ্লিষ্ট বিবিধ বিষয়ে প্রযোজ্য মেকানিজম সম্পর্কে সম্যক জ্ঞান লাভ করা সম্ভব হবে বলে আশা করা যায়।

এ ইভেন্ট হতে প্রাপ্ত তথ্য, উপাত্ত ও দিকনির্দেশনাই-ক্যাব ও সরকারের তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের যৌথ উদ্যোগে প্রস্তুতকৃত ও প্রক্রিয়াধীন খসড়া জাতীয় ই-কমার্স নীতিমালা, ২০১৬ এর উন্নয়নেঅসামান্য অবদান রাখবে বলে আশা করা যাচ্ছে।

 

– সিনিউজভয়েস ডেস্ক

Please Share This Post.