জমজমাট আয়োজনে হয়ে গেল রংপুর ও সিলেট আঞ্চলিক প্রতিযোগিতা

জমজমাট আয়োজনে হয়ে গেল জাতীয় হাইস্কুল প্রোগ্রামিং প্রতিযোগিতার রংপুর ও সিলেট আঞ্চলিক পর্ব। আজ বৃহস্পতিবার (২৪ মার্চ) রংপুরের বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ে অনুষ্ঠিত হয়েছে রংপুর আঞ্চলিক পর্ব। সকালে বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় মিলনায়তনে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. এ কে এম নূর-উন-নবী’র সভাপতিত্বে আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক বলেন, ‘ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার কাজে আমাদের তরুন প্রজন্ম কাজ করছে সৈনিক হিসাবে। তারা তৈরি করছে রোবট, মুক্তিযুদ্ধ নিয়ে বানাচ্ছে গেম, তৈরি করছে বিশ্বমানের ওয়েবসাইট, বানাচ্ছে নিত্য নতুন অ্যাপ। তাদের কাজের সুবিধার জন্য আমরা তৈরি করছি পরিবেশ।’

তিনি আরো বলেন, ‘শিক্ষার্থীদের প্রোগ্রামিং দক্ষতা বাড়ানো এবং সেটি যাচাই করার সুযোগ দেওয়ার জন্য আমরা গতবছর থেকে জাতীয় হাইস্কুল প্রোগ্রামিং প্রতিযোগিতা শুরু করেছি। গত বছরের তুলনায় এ বছর এই আয়োজন বাড়ানো হয়েছে। ১৬টি আঞ্চলিক উৎসব হচ্ছে এবার। আগামীতে আমরা এটিকে আরো বাড়াবো’। অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন রংপুর বিভাগের বিভাগীয় কমিশনার কাজী হাসান আহমেদ, বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের সিএসই বিভাগের বিভাগীয় প্রধান অধ্যাপক ড. মো. তাজুল ইসলাম, রবি’র নর্থান ক্লাস্টারের মার্কেট ডিরেক্টর এইচ এম তারিকুল কামরুলসহ অনেকে।

একই দিনে সিলেটের শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে অনুষ্ঠিত হয়েছে সিলেট আঞ্চলিক পর্ব। সকালে বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় মিলনায়তনে অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করেন শাবিপ্রবির উপাচার্য অধ্যাপক ড. আমিনুল হক ভূঁঁইয়া। অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন শাবিপ্রবির কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক ড. ইলিয়াস উদ্দিন বিশ্বাস, ফলিত বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি অনুষদের ডিন (ভারপ্রাপ্ত) অধ্যাপক ড. মুস্তাক আহমেদ, সিএসই বিভাগের বিভাগীয় প্রধান অধ্যাপক ড. মো. সেলিম রেজা, জনপ্রিয় লেখক অধ্যাপক ড. মুহম্মদ জাফর ইকবাল, রবি’র মার্কেট অপারেশন বিভাগের রিজিওনাল ম্যানেজার (সেলস) জসিম উদ্দিন।

প্রতিযোগিতা সকাল ৮টায় শুরু হয়ে প্রতিযোগিতা চলে দুপুর ২টা পর্যন্ত। পরবর্তীতে প্রোগ্রামিং প্রতিযোগিতায় দুই ক্যাটাগরিতে ২০ জন এবং কুইজে তিন ক্যাটাগরিতে ৬০ জন বিজয়ীদের পুরস্কৃত করা হয়। আঞ্চলিক পর্বের পাশাপাশি সারাদেশে প্রতিযোগিতা উপলক্ষ্যে চলছে অ্যাক্টিভেশন কার্যক্রম। সারাদেশে মোট এক হাজার হাইস্কুলে চলবে অ্যাক্টিভেশন কার্যক্রম। এরই অংশ হিসেবে ইতিমধ্যে প্রায় ৬৫০টি স্কুলে অনুষ্ঠিত হয়েছে অ্যাক্টিভিশন।

দেশের হাইস্কুলের শিক্ষার্থীদের কম্পিউটার প্রোগ্রামিং-এর প্রতি আগ্রহী করে তোলা এবং তাদের দক্ষতা বৃদ্ধির জন্য গত বছর থেকে এই আয়োজন শুরু করেছে সরকারের তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগ। প্রতিযোগিতায় প্রোগ্রামিং ছাড়াও আইসিটি কুইজও অন্তর্ভুক্ত রয়েছে। ৬ষ্ঠ থেকে দ্বাদশ শ্রেণী এবং পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটের ৪র্থ সেমিস্টার পর্যন্ত শিক্ষার্থীদের জন্য এবার প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হচ্ছে।

উল্লেখ্য, দেশের ১৬টি শহরে এই প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হচ্ছে। এগুলো হচ্ছে রংপুর, রাজশাহী,  খুলনা, সিলেট, চট্টগ্রাম, বরিশাল, ঢাকা, গোপালগঞ্জ, দিনাজপুর, পাবনা, পটুয়াখালী, টাঙ্গাইল, নোয়াখালী, কুমিল্লা, যশোর ও ময়মনসিংহ। সব অঞ্চলের বিজয়ীদের নিয়ে আগামী ১৬ এপ্রিল ঢাকার কৃষিবিদ ইনস্টিটিউট মিলনায়তনে জাতীয় পর্যায়ের প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হবে।

সিনিউজভয়েস/ডেক্স