জবসবিডির আয়োজনে জানুয়ারিতে গুগল সামিট

 

তথ্যপ্রযুক্তি জ্ঞানের উৎকর্ষতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে দেশের শীর্ষস্থানীয় জবপোর্টাল ‘জবসবিডি ডটকম’ আগামী জানুয়ারি ২৭-২৮, ২০১৭ তারিখে ঢাকায় এবং জানুয়ারি ২৮-২৯, ২০১৭ তারিখে চট্টগ্রামে আয়োজন করতে যাচ্ছে ‘বাংলাদেশ সামিট-ফিচারিং গুগল ফর এডুকেশন ২০১৭’।

এ সামিটে শিক্ষার কাজে ব্যবহৃত বিভিন্ন গুগল অ্যাপস ব্যবহার এবং গুগল প্রোডাক্টসমূহ বিশেষ করে গুগল আর্থ, শিক্ষার জন্য ইউটিউব, গুগল সার্চ, গুগল ড্রাইভ, গুগল ক্যালেন্ডার, গুগল হ্যাং আউটস্, গুগল সাইটস্, গুগল ক্রোম, গুগল ফরমস্ এবং জিমেইল বিষয়ে গুরুত্বপূর্ণ সেশানসমূহ প্রাধান্য পাবে।

২৭ ডিসেম্বর, ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির সম্মেলন কক্ষে আয়োজিত এক মিট দ্য প্রেস অনুষ্ঠানে এসব তথ্য জানানো হয়। ‘বাংলাদেশ সামিট-ফিচারিং গুগল ফর এডুকেশন ২০১৭’ এর আহবায়ক এবং জবসবিডির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা কে এম হাসান রিপনের সভাপতিত্বে মিট দ্য প্রেস অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন গুগল এডুকেটর গ্রুপ বাংলাদেশ-এর নাদির বিন আলী, খন্দকার শাহ আল মামুন, আমেনা হাসান এনা, বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অব সফটওয়্যার অ্যান্ড ইনফরমেশন সার্ভিসেস (বেসিস) এর সহকারি প্রকল্প ব্যবস্থাপক সোহাগ চন্দ্র দাস, বাংলাদেশ ইনোভেশন ফোরামের সভাপতি আরিফুল হাসান অপু, বিল্যান্সারের প্রতিষ্ঠাতা শফিউল আলম।

এবারের সামিটের সহ-আয়োজক হিসেবে রয়েছে গুগল এডুকেটর গ্রুপ বাংলাদেশ ও গুগল এডুকেটর গ্রুপ ঢাকা সাউথ, স্ট্যাটিজিক পার্টনার হচ্ছে বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অব সফটওয়্যার অ্যান্ড ইনফরমেশন সার্ভিসেস (বেসিস) এবং নলেজ পার্টনার হচ্ছে ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি।

মিট দ্য প্রেস অনুষ্ঠানে জানানো হয়, মালয়েশিয়া, ফিলিপাইন, ভারত, থাইল্যান্ড থেকে আগত গুগল সার্টিফায়েড শিক্ষক, প্রশিক্ষক, শিক্ষার জন্য গুগল অ্যাপস নির্মাতা, অভিজ্ঞ পেশাজীবী, সলিউশ্যন প্রোভাইডার, গুগল প্রকৌশলী এবং গুগল অ্যাপস ফর এডুকেশন এর প্রতিনিধিবৃন্দ বিভিন্ন কারিগরি সেশান পরিচালনা করবেন এবং আলোচনায় অংশ নিবেন।

এ সামিটে বিভিন্ন ক্যাটাগরিতে তিনশত শিক্ষক, শিক্ষার্থী ও পেশাজীবী অংশগ্রহণের সুযোগ পাবে। আগ্রহীদের আগামী ২৫ জানুয়ারির মধ্যে নির্ধারিত ফরমে অনলাইনের মাধ্যমে মনোনয়ন জমা দিতে হবে। ওয়েবসাইটের মাধ্যমে বিস্তারিত জানা যাবে। ওয়েবসাইট: http://googlesummit.jobsbd.com

অংশগ্রহণকারীরা সনদ ও পুরস্কারের পাশাপাশি আজীবন গুগল এডুকেশন টুলস এর বিকাশমান ধারার সঙ্গে সম্পৃক্ত থাকার সুযোগ পাবে। প্রতিটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান থেকে সর্বোচ্চ ৪ জন শিক্ষক ও ৪ জন শিক্ষার্থী মনোনয়ন জমা দিতে পারবে।

 

– সিনিউজভয়েস ডেস্ক

Please Share This Post.