চলছে দুইদিনব্যাপী অ্যাডা লাভলেস সেলিব্রেশন ২০২০

কবিগুরু রবীন্দ্রনাথের “একলা চলো রে” গান গেয়ে আর জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলামের “নারী” কবিতা আবৃত্তি দিয়ে নারীর পথ চলা কে উৎসাহিত করার মাধ্যমে আজ থেকে শুরু হলো তথ্য প্রযুক্তিতে নারীর অবদান উদযাপন করার উৎসব অ্যাডা লাভলেস সেলিব্রেশন।

সফলদের সঙ্গে নতুনদের নেটওয়ার্ক এবং আগামী দিনের চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা করার প্রস্তুতির লক্ষ্য নিয়ে ২ এবং ৩ জানুয়ারিতে এশিয়া প্যাসিফিক ইউনিভার্সিটিতে চলবে এ আয়োজন।

কম্পিউটার প্রোগ্রামিং এর প্রবর্তক অ্যাডা লাভলেস এর নামে  আয়োজিত এ উৎসবে দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে অংশ নিচ্ছে বিভিন্ন কলেজ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা। সারাদিনের বিভিন্ন সেশনে যোগ দেবেন তথ্য প্রযুক্তিতে প্রতিষ্ঠিত নারী ব্যক্তিত্বুগণ।

আজ সকাল থেকেই শিক্ষার্থীদের নিবন্ধনের মাধ্যমে শুরু হয়ে গেছে উৎসবের। একে অন্যের গলায় বাঙ্গালীর গ্রামীণ ঐতিহ্য গামছা পরিয়ে উৎসবের উদ্বোধন করেন উপস্থিত শিক্ষার্থীরা। উদ্বোধনের পরপরেই বিভিন্ন সেশন রুমে একই সাথে চলছে সেমিনার, প্রোগ্রামিং কন্টেস্ট এবং ক্যারিয়ার সেশন। ক্যারিয়ার সেশনে উপস্থিত আছে ইএমকে সেন্টার। দেশের বাইরে পড়তে যেতে কিভাবে প্রস্তুতি নিতে হবে সে সম্পর্কে নির্দেশনা দিচ্ছেন তারা।

সারাদিনের বিভিন্ন ক্যারিয়ার সেশনে উপস্থিত থাকবে দেশের তথ্য প্রযুক্তি ভিত্তিক প্রতিষ্ঠান কাজি আইটি সেন্টার, ব্রেইনস্টেশন ২৩ এবং কল সেন্টার অগমেডিক্স। চলছে BACCO, Wedevs, বাংলাদেশ উইমেন ইন টেকনোলজি (বিডব্লিউআইটি), দোহাটেক, ক্রিয়েটিভ আইটি, ডি.নেট, স্কাইলার্ক সফট লিমিটেড, অন্যরকম গ্রুপ, ওয়ার্কস্টেশন ১০১, ইন্ট্রারেক্টিভ আর্টইফেক্ট, বিটেকনলোজি সহ আরও অনেক প্রতিষ্ঠানের অংশগ্রহণে জব ফেয়ার। থাকছে পোস্টার প্রতিযোগিতা, মেশিন লার্নিং এবং ন্যাচারাল ল্যাংগুয়েজ প্রোসেসিং এর পর ওয়ার্কশপ, আড্ডা এবং নেটওয়ার্কিং।

তথ্য প্রযুক্তি খাতে ক্যারিয়ার গড়তে আগ্রহী এমন নারী শিক্ষার্থীদের সংযুক্ত করা হবে এই আয়োজনে যেখানে তাদের উৎসাহ দিতে সারাদিনের সেমিনার,ওয়ার্কশপ, অনলাইন সেশনে উপস্থিত থাকবেন- যুক্তরাষ্ট্রের  জাতীয় বিজ্ঞান ফাউন্ডেশনের প্রকল্প পরিচালক ফাহমিদা নিলুফার চৌধুরী নর্থ সাউথ ইউনিভার্সিটির সিনিয়র লেকচারার তানজিলা ফারাহ, মার্কস এন্ড স্পেন্সার (বাংলাদেশ এন্ড মায়ানমার) এর কান্ট্রি হেড স্বপ্না ভৌমিক, ইউনিভার্সিটি অফ মেসাচুসেটস অ্যামহার্স্ট এর পিএইচডি স্টুডেন্ট ইন কম্পিউটার সাইন্স তামান্না মোতাহার, ইউনিভার্সিটি অফ রচেষ্টার এর পিএইচডি স্টুডেন্ট মোহাম্মদ রাফায়েত আলি , ব্র্যাক ইউনিভার্সিটির সহযোগী অধ্যাপক সেউতি সবুর  প্রমুখ। এছাড়াও তথ্য-প্রযুক্তিতে অবদান রেখেছেন এমন ১০ জন নারী ব্যক্তিত্বকেও সম্মান জানানো হবে এই উৎসবে।

এই আয়োজনের সাথে রয়েছে- ভেঞ্চার ক্যাপিটাল ও প্রাইভেট ইকুইটি এসোসিয়েশন অফ বাংলাদেশ (ভিসিপিইএবি), বাংলাদেশ উইমেন ইন টেকনোলজি (বিডব্লিউআইটি), ইন্টারনেট সোসাইটি বাংলাদেশ চ্যাপ্টার, হার স্টোরি, বাংলাদেশ কম্পিউটার সমিতি, ওয়ালেটমিক্স, প্রোগ্রামিং প্ল্যাটফর্ম টফ ছাড়াও আরও অনেক প্রতিষ্ঠান।

উৎসবের বিস্তারিত মিলবে- http://alc.bdosn.org/। থাকছে উৎসবের ভেন্যুতে রেজিস্ট্রেশনের সুযোগ।

 

– সিনিউজভয়েস/জিডিটি/জানু.০২/২০

Please Share This Post.