গ্রামীণফোনের সাধারণ কর্মীদের প্রতিবাদ অব্যাহত

বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় অপারেটর গ্রামীণফোন লিমিটেডে চাকুরির নিশ্চয়তা, যৌক্তিক ও নায্যতা ভিত্তিক বেতন বৃদ্ধির দাবীসহ ৭ দফা দাবীতে ২১তম দিনের মতো তাদের শান্তিপূর্ণ কর্মসুচি পালন করেছে সাধারণ কর্মীরা। প্রথম থেকেই জিপিপিসি ও গ্রামীণফোন এমপ্লয়ীজ ইউনিয়ন সাধারণ কর্মীদের সঙ্গে একাত্বতা প্রকাশ করেছে।

গ্রামীণফোন পিওপলস কাউন্সিলের প্রস্তাবিত ইনক্রিমেন্টকে অকার্যকারী ঘোষণা করে কোম্পানির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তার ১৯ এপ্রিল ঘোষিত ইনক্রিমেন্টে সমস্ত কর্মীরা চরম হতাশা প্রকাশ করলে সাধারণ কর্মীরা ২০ এপ্রিল শান্তিপূর্ণ অবস্থান কর্মসূচি গ্রহণ করে। এরই ধারাবাহিকতায় আজ লাল টি-শার্ট পরে জিপি হাউজ সহ সারাদেশের গ্রামীণফোনের সকল কার্যালয়ে দুপুর ১টা ৩০ মি. থেকে ২ টা পর্যন্ত প্লাজা এরিয়ায় স্লোগান সহ প্রতিবাদ ও লেভেল ২তে শান্তিপূর্ণ মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করে।

গ্রামীণফোনের সাধারণ কর্মীরা তাদের ন্যায্য দাবী না মানা পর্যন্ত শান্তিপূর্ণ কর্মসূচি চালিয়ে যাবার প্রত্যয় ব্যক্ত করে। উল্লেখ, কর্মীদের পরিশ্রমের কারণেই আজ বাংলাদেশের অন্যতম কর্পোরেট হাউজ গ্রামীণফোন ২০১৭ সালে রেকর্ড পরিমান রাজস্ব এবং মুনাফা করেছে। কিন্তু বেতন বৃদ্ধির ঘোষণার সঙ্গে তাদের আইনগত অধিকার কোম্পানির মুনাফায় কর্মচারীদের পাওনার অংশ এবং পারফরম্যান্স বোনাসের অংশও এই হিসাবের সঙ্গে সংযুক্ত করায় সাধারণ শ্রমিক-কর্মচারীদের মধ্যে অসন্তোষ সৃষ্টি হয়। এবং তারই ফলশ্রুতিতে সাধারণ শ্রমিক-কর্মচারীরা লাগাতার কর্মসূচির ডাক দিয়েছে এবং দাবী আদায় না হওয়া পর্যন্ত তাদের শান্তিপূর্ণ কর্মসূচি চালিয়ে যাওয়ার ঘোষণা দিয়েছে।

গ্রামীণফোন এমপ্লয়ীজ ইউনিয়ন (জিপিইইউ) তাদের ৭ দফা দাবির অংশ হিসেবে এই ধারাবাহিক শান্তিপূর্ণ কর্মসূচিতে একাত্বতা ঘোষণা করে।

 

 

– সিনিউজভয়েস ডেস্ক

Please Share This Post.