গেমিং কোম্পানি রেজার বানাল উন্নত মানের মাস্ক

চলমান করোনাভাইরাস মহামারীর কারণে বিশ্বব্যাপী মাস্কের ব্যবহার অকল্পনীয় রকমের বেড়েছে। সারা পৃথিবীতে উৎপাদিত হচ্ছে নানা রকমের মাস্ক এবং সবাইকে উৎসাহিত করা হচ্ছে স্বাস্থ্যসম্মত মাস্ক পরিধান করার জন্য। গেমিং কোম্পানি রেজারও তাই মাস্ক তৈরির কাজে নেমে পড়েছে। কেবল তাই নয়, তারা ঘোষণা করেছে যে তারা বিশ্বের সবচেয়ে স্মার্ট মাস্ক তৈরি করেছে, যাতে রয়েছে একটি বিল্ট-ইন মাইক্রোফোনও। সম্প্রতি টেক কনভেনশন সিইএস-এ এই মাস্কের একটি প্রোটোটাইপ প্রদর্শিত হয়েছে। এটি মাস্ক পরিধানকারীর কণ্ঠস্বরকে জোরালোভাবে প্রকাশ করবে, ফলে মাস্ক পরে থাকলে আমাদের কথায় যে একটা চাপা ভাব আসে সেটি আর আসবে না বলে জানিয়েছে রেজার। এতে রয়েছে অ্যাকটিভ ভেন্টিলেশন সুবিধা, ফলে গরম বাতাস বের করে দিয়ে ঠান্ডা বাতাস ভেতরে ঢোকায় সাহায্য করবে এই মাস্ক। কোম্পানিটি জানিয়েছে যে এটি একটি এন৯৫ সার্জিক্যাল মাস্কের সমতুল্য, যদিও স্বাস্থ্য বিষয়ক গবেষকদের দ্বারা এটি এখনও সঠিকভাবে প্রমাণিত হয়নি। রেজার নামে এই কোম্পানি আরো জানিয়েছে যে তাদের মাস্কটি লো লাইট মোডে ব্যবহার করা যাবে। এর মানে হচ্ছে, মাস্কটি পরে অন্ধকারে গেলে স্বয়ংক্রিয়ভাবে এটি আলোকিত হয়ে যাবে, মানে যিনি পরে আছেন তাঁর মুখাবয়ব আলোকিত দেখাবে। এত সব প্রযুক্তি ধারণ করার পর এটি পরা কি আরামদায়ক? রেজার জানিয়েছে, এর ভেতরের সিলিকন ফিটিংয়ের কারণে এটি পরা খুবই আরামদায়ক।

Please Share This Post.