গুগল সার্চের ব্যাখ্যা দিলেন গুগলের প্রধান নির্বাহী

সার্চ ইঞ্জিনে ‘idiot’ লিখে ছবি খুঁজলেই মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের ছবি দেখাচ্ছে গুগল। গুগলের বিরুদ্ধে অনুসন্ধান ফলাফলে কারসাজির অভিযোগ তুলেছিল ডোনাল্ড ট্রাম্প প্রশাসন।

গত মঙ্গলবার এ বিষয়ে কংগ্রেসের বিচার বিভাগীয় কমিটির এক শুনানিতে হাজির হয়েছিলেন অ্যালফাবেট নিয়ন্ত্রিত গুগলের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) সুন্দর পিচাই। সেখানে ডেমোক্র্যাট প্রতিনিধি জো লফগ্রেন সুন্দর পিচাইকে প্রশ্ন করেন, গুগল ইমেজ অনুসন্ধানে ‘ইডিয়ট’ লিখলে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের ছবি আগে দেখানো হয় কেন? গুগল রাজনৈতিক পক্ষপাতে বিশ্বাসী নয়, বিষয়টি কীভাবে ব্যাখ্যা করবেন?

জবাবে সুন্দর পিচাই বলেন, গুগল এ মুহূর্ত থেকে অতীতের যেকোনো বিষয়ে অনুসন্ধান ফলাফল দিয়ে থাকে। কাজেই যেকোনো সময় কোনো কি-ওয়ার্ড লিখে অনুসন্ধান করলে আমরা কয়েক মুহূর্ত সময় নিই এবং গুগল ইনডেক্সে সংরক্ষিত তথ্য থেকে অনুসন্ধান সংশ্লিষ্ট সবচেয়ে প্রাসঙ্গিক তথ্য প্রদর্শন করি। আমাদের স্বয়ংক্রিয় সিস্টেম আপনার প্রদত্ত কি-ওয়ার্ড গ্রহণ করে এবং তা কয়েক বিলিয়ন ওয়েবপেজের সঙ্গে মেলানোর চেষ্টা করে। ২০০-এর বেশি সংকেত কাজে লাগিয়ে আমাদের সিস্টেম অনুসন্ধান সংশ্লিষ্ট বিষয়বস্তুর একটি ক্রম তৈরি করে এবং সবচেয়ে সামঞ্জস্যপূর্ণ ও প্রাসঙ্গিক তথ্য প্রদর্শন করে। চূড়ান্ত ফলাফল প্রদর্শনের আগে ক্রম তৈরির ক্ষেত্রে প্রাসঙ্গিকতা, নতুনত্ব, জনপ্রিয়তা এবং যে কি-ওয়ার্ড বিষয়ে গ্রাহক অনুসন্ধান করছেন, তা মানুষ কীভাবে ব্যবহার করছেন, এটি বিবেচনায় নেয়া হয়। এছাড়া সবচেয়ে প্রাসঙ্গিক অনুসন্ধান ফলাফল প্রদর্শনের জন্য আমাদের অভ্যন্তরীণ রেটপ্রদানকারী রয়েছেন।

সুন্দর পিচাই বলেন, ইন্টারনেট বিশ্ব কোনো নির্দিষ্ট কি-ওয়ার্ড কোন উদ্দেশ্যে সবচেয়ে বেশি ব্যবহার করছে, তার ওপর নির্ভর করে গুগল অনুসন্ধান ফলাফল। বিষয়টি এমন নয়, অনুসন্ধান ফলাফল প্রদর্শনের জন্য কোনো ক্ষুদ্র মানব গুগলের অন্তরালে বসে রয়েছেন। গুগলে যে বিষয়েই অনুসন্ধান করা হোক, বাস্তবিক অর্থে আমরা কখনই ম্যানুয়ালি হস্তক্ষেপ করি না।

অন্যদিকে গুগল-প্লাসের ৫ কোটি ২৫ লাখ ব্যবহারকারীর তথ্য ফাসের কথা স্বীকার করেছে গুগল।

-সিনিউজভয়েস/ডেক্স

Please Share This Post.