গুগল প্লে স্টোরে ব্লু হোয়েল নামে কোনো গেম নাই: পলক


“আমাদের জানা মতে, ব্লু হোয়েল নাম নিয়ে যেসব গুজব ছাড়ানো হচ্ছে গুগল প্লে স্টোরে এ ধরনের কোনো গেম নাই। কিন্তু ব্লু হোয়েল স্পামটি ছড়ানোর পরে অনেক ডেভেলপাররা ব্লু হোয়েল নাম দিয়ে গুগল প্লে স্টোরে কিছু গেম ডেভেলপ করেছে। এখন গুগল প্লে স্টোর, অ্যাপস-স্টোর, আইওএস -স্টোর এগুলোতে আমরা ভিজিট করে দেখেছি ব্লু হোয়েল নামে যেসব গুজব ছাড়ানো হচ্ছে এ ধরনের কোনো গেম নাই। আসলে এটা একটা ডার্কওয়েব গেম।”

সোমবার রাতে ইজি টেকনোলজির আয়োজনে ঢাকার কারওয়ান বাজারস্থ জনতা টাওয়ারে ইজি টেকনোলজি লিমিটডের কার্যালয়ে একটি আলোচনা অনুষ্ঠানে হাইটেক পার্ক অথোরিটির কনসালটেন্ট মুনির হাসানের ব্লু হোয়েল গেম নিয়ে এক প্রশ্নের জবাবে এসব কথা বলেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক।

পলক বলেন, “এখন আমাদের ই-মেইলে অটোমেটিক্যালি এই গেমের কোনো স্পাম চলে আসতে পারে কিংবা দেখা গেছে ম্যাসেঞ্জারে এবিষয়ে একটা ম্যাসেজ আসতে পারে কিংবা মোবাইলে কোনো গেম বা অ্যাপ ডাউনলোড করার সময়ও হয়তো অটোমেটিক্যালি এধরনের গেম বা ওয়েবসাইটের লিংক চলে আসতে পারে।”

প্রতিমন্ত্রী বলেন, “ইন্টারনেট দুনিয়ায় প্রথমেই আমাদের সতর্কতা অবলম্বন করতে হবে। আজকে ব্লু হোয়েল নিয়ে যে ধরণের অপপ্রচার হচ্ছে, অনেক ধরনের গুজব ছড়াচ্ছে, এরপরে হয়তো ওই লোকগুলো আরেকটা নতুন কোনো বিষয় নিয়ে আসতে পারে। তবে আমাদের উদ্দেশ্য হলো- যারা ইন্টারনেট ইউজার তাদের জন্য এই ইন্টারনেট দুনিয়াটাকে আরো নিরাপদ করে তুলা।

ব্লু হোয়েল নিয়ে সবাইকে সতর্ক হওয়ার আহ্বান জানিয়ে প্রতিমন্ত্রী বলেন, “এই বিষয় যেটা করতে হবে সেটা হলো-আমাদের প্রত্যোককে সতর্কতা অবলম্বর করতে হবে। আমাদের ই-মেইলে এধরণের কোনো স্পাম বা গেমের লিংক আসলে সেগুলো যেন না খুলি। এছাড়াও আমাদের ডিজিটাল লিটারেসি বিষয়ে আরো সচেতন হবে হবে।”

ব্লু হোয়েল সম্পর্কে বিটিআরসির চেয়ারম্যান শাহজাহান মাহমুদ বলেন, “ব্লু হোয়েল নিয়ে দেশে যা চলছে, সবই গুজব। কারণ গেমটি কম্পিউটার পিসি বেইজড একটা গেম। গেমটি রাশিয়ার ভাষায় তৈরি। এই গেম খেলে যারা আত্মহত্যা করেছেন, তারাও বেশিরভাগ রাশিয়ার। এটা আমি রাশিয়া সফরে জানতে পেরেছি। সেখানেই শুনেছি- ব্লু হোয়েলের বিপরীতে বের করা হয়েছে ইয়েলো হোয়েল। ব্লু হোয়েলে আসক্তদের ফিরিয়ে আনতে সহযোগিতা করবে ইয়েলো হোয়েল গেমটি। এটিও মনোরোগ বিশেষজ্ঞদের উদ্ভাবন।” সচেতনতার সঙ্গে ইন্টারনেট ব্যবহারের পরামর্শ দেন তিনি।

এ ইয়েলো হোয়েল বিষয়ে পলক বলেন, “ব্লু হোয়েল গেমটি খারাপের দিকে ধাবিত করে, ইয়েলো হোয়েল ভালোর দিকে। ভালোর দিকে চালানো ও খারাপের দিকে চালানোর লড়াই পৃথিবী সৃষ্টির শুরু থেকে এখনও আছে, পৃথিবী ধ্বংসের আগ পর্যন্ত থাকবে। এর মধ্যেই আমাদের বাঁচতে হবে। ভালো দিয়ে খারাপকে হঠিয়ে দিতে হবে।”

ব্লু হোয়েল গেমস সম্পর্কে তিনি আরও বলেন, “একজন নির্দেশনা দিলো- হাত কেটে রক্তাক্ত করে ব্লু হোয়েল আঁকতে, আর আমি এঁকে ফেলব? এটা কীভাবে হয়? আসলে আমাদের প্রজন্মকে সুস্থ মানসিকতার অধিকারী নিয়ে বড় করতে হবে। নতুন প্রজন্মকে তাদের স্বাভাবিক জীবন উপভোগের সুযোগ দিতে হবে, সবুজ খেলার মাঠ, পারিবারিক শিক্ষা, ধর্মীয় অনুশাসন- সবকিছু নিশ্চিত করা জরুরি। নাহলে প্রজন্মের প্রতিভা প্রকাশ পাবে না, কুপথে পা যাবে তাদের।”

ইজি টেকনোলজির আয়োজনে এ আলোচনা অনুষ্ঠানের সঞ্চালনা করেন- হাইটেক পার্ক অথোরিটির কনসালটেন্ট মুনির হাসান। আলোচনা অনুষ্ঠানে ছিলেন বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশনের (বিটিআরসি) চেয়ারম্যান শাহজাহান মাহমুদ ও মায়া ডটকম ডটবিডি’র প্রতিষ্ঠাতা আইভ হক রাসেল।

সিনিউজভয়েস//ডেস্ক