কোভিড-১৯ নিয়ে দেশে সিমুলেশন টুলস অবিষ্কার

বর্তমান সময়ে COVID-19 বিশ্বময় মানবসভ্যতার সামনে এক ভয়াবহ সংকট সৃষ্টি করেছে। এই সংকট ময় পরিস্থিতি থেকে উত্তরনের জন্য অনেকেই ভিন্ন ভিন্ন আঙ্গিকে নানাবিধ গবেষণা শুরু করেছে। সম্প্রতি আমরা Epidemic Disease / Outbreak Simulation এর একটি Computational Web Application Tools নির্মাণে সক্ষম হয়েছি। উক্ত Simulation Tools এর মাধ্যমে কোন নির্দিষ্ট অঞ্চলে/ এলাকায় কোন Epidemic Disease কিভাবে বিস্তার লাভ করতে পারে তা Prediction করা সম্ভব। এর মাধ্যমে আক্রান্ত ঝুঁকিতে থাকা মানুষের সংখ্যা এবং প্রাদুর্ভাব কমে আসতে কি পরিমান সময় লাগতে পারে সে সম্পর্কে ধারনা পাওয়া যায়।  উক্ত সিমুলেশনের ফলাফল জাতীয় দুর্যোগ ব্যবস্থাপনার ক্ষেত্রে সরকারের আগাম করনীয় পরিকল্পনা বাস্তবায়নে সহায়ক হবে।

এই Simulation Tools এর বিভিন্ন ইনপুট প্যারামিটার যেমন ট্রান্সমিশন প্রবাবিলিটি, পার ডে কন্টাক্ট ইত্যাদির ব্যাপারে মেডিকেল / পাবলিক হেলথ এক্সপার্টদের মতামতের প্রেক্ষিতে যথাযথ প্রয়োগ ঘটিয়ে কোন Outbreak কিভাবে নিয়ন্ত্রনে নিয়ে আসা যেতে পারে তা Simulation করা সম্ভব। এই গানিতিক রোগতত্ত্ব ব্যাবহারের মাধ্যমে সহজেই রোগের বিস্তার নির্ণয়, বিভিন্ন ঝুঁকি মোকাবিলা এবং আইসোলেশন / কোয়ারেন্টাইন ইত্যাদির বিষয়ে পলিসি নির্ধারণ করে  করে বৃহত্তর জনগোষ্ঠীকে নিরাপদে রাখার ব্যবস্থা করা যেতে পারে।

Susceptible , Exposed , Infectious  and Recovery (SEIR) ভিত্তিক Epidemic Disease মডেলিং তত্ত্ব অনুসরণ করে উক্ত Simulation Tools নির্মিত হয়েছে। উল্লেখ্য যে ইতোমধ্যে WHO , Jon Hopkins সহ বিভিন্ন আন্তর্জাতিক সংস্থা এধরনের মডেল ব্যবহার করে বিভিন্ন সময়ে Epidemic Disease  সংক্রান্ত পূর্বাভাস প্রদান এবং পলিসি গ্রহন করেছে।

বর্তমানে আমাদের দেশের করোনা ভাইরাসের সংকট উত্তরনের জন্য আমরা যে ওয়েব এপ্লিকেশন তৈরি করেছি তার সোর্স কোড এবং ডকুমেন্টেশন উন্মুক্ত করার সিদ্ধান্ত নিয়েছি, যাতে অন্যান্য আগ্রহী গবেষকগন উক্ত Simulation Tools এর পরিবর্তন , পরিবর্ধন এবং উন্নয়নে অবদান রাখতে পারেন। আগ্রহী গবেষক বা কোন সংস্থা  আমাদের সাথে যোগাযোগ করলে আমরা তাকে/তাদেরকে উক্ত Simulation Tools ব্যবহার করার সুযোগ অথবা সোর্স কোড প্রদান করবো।

ট্রান্সমিশন রেট, পার ডে কন্টাক্ট,  সামাজিক ও পরিবেশগত বিভিন্ন ফ্যাক্টর উপর নির্ভরশীল হওয়ার কারনে উক্ত Simulation Tools এর ফলাফলের সাথে বাস্তব ফলাফলের তারতম্য হতে পারে।

উক্ত গবেষনাটি করেছেন অধ্যাপক ডঃ আবুল কাশেম,ঢাকা প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ আসাদুজ্জামান চৌধুরী ,ঢাকা প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, ফজলে রাব্বী, জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়, সাব্বির পারভেজ , জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়।

 

 

 

-সিনিউজভয়েস/জিডিটি/২৭মা./২০

 

Please Share This Post.