করোনাভাইরাস মোকাবেলায় হ্যাকাথন আগামী ২-৪ মে অনুষ্ঠিত হবে

করোনা ভাইরাস মোকাবেলায় ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির উদ্যোগে বাংলাদেশে এই প্রথম অনলাইন প্ল্যাট ফর্মে আয়োজিত “করোনাথন-১৯” হ্যাকাথন আগামী ২-৪ মে অনুষ্ঠিত হবে।

ভারত, পাকিস্থান, ইরান, চীন. দক্ষিন কোরিয়ার ১৯টি এবং স্বাগতিক বাংলাদেশ থেকে প্রায় প্রায় শতাধিক দল এ হ্যাকাথনে অংশগ্রহণ করছে। “করোনাথন-১৯” এর আহবায়ক ও ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির মাল্টিমিডিয়া ও ক্রিয়েটিভ টেকনোলজি ডিপার্টমেন্টের প্রধান ড. শেখ মোঃ আলায়ার জানান, বৈশ্বিক লক ডাউনের কারনে যথাযথ প্রস্তুতি নিতে না পারায় প্রচুর আগ্রহী বেশ কিছু বিদেশী দলের অনুরোধে কর্তৃপক্ষ ২৮-৩০ এপ্রিলের পরিবর্তে ২-৪ মে “করোনাথন-১৯” এর নতুন তারিখ নির্ধারন করেছে এবং সেক্ষেত্রে রেজিস্ট্রেশনের শেষ তারিখ থাকবে ৩০ এপ্রিল।

কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা তথা Artificial Intelligence প্রযুক্তিকে কাজে লাগিয়ে বর্তমানে করোনা ভাইরাসের প্রকোপকে মোকাবেলার জন্য চিকিৎসকদের পাশাপাশি প্রযুক্তিবিদদেরও একটা দায়বদ্ধতা আছে ; আর কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা (AI) প্রযুক্তি হতে পারে প্রযুক্তিবিদদের অন্যতম একটা হাতিয়ার। সে লক্ষ্যেই করোনা ভাইরাস মোকাবেলায় ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি আগামী ২-৪ মে, ২০২০ অনলাইনে আয়োজন করতে যাচ্ছে “করোনাথন-১৯” হ্যাকাথন যেখানে বাংলাদেশ সহ সারা পৃথিবীর যুব সমাজ এবং ছাত্র সমাজ অংশগ্রহণ করতে পারবে এবং ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি এর গবেষকদের তত্ত্বাবধানে করোনা মোকাবেলার প্রযুক্তি নির্ভর বিভিন্ন উপায় উদ্ভাবন করবেন এবং বিজয়ীগণ পুরস্কার হিসেবে পাবেন ২৫০০০ ইউএস ডলার।

কভিড-১৯ এর কারণে বিশ্বব্যাপী সৃষ্টি হওয়া অসংখ্য সমস্যার সমাধান সনাক্তকরণ, বর্তমান পরিস্থিতিতে সবচেয়ে জরুরি সমস্যাগুলো যথা স্বাস্থ্য, খাদ্য, পুষ্টি ইত্যাদির সমাধান নির্ণয় করা, শিক্ষার্থীদেরকে বাস্তব জীবনের বিভিন্ন সমস্যা সমাধানে উদ্বুদ্ধ করা এবং বর্তমান সংকট মোকাবেলায় বিভিন্ন উপায় উদ্ভাবনের ক্ষেত্রে শিক্ষার্থীগণ যেন তাদের জ্ঞান এবং দক্ষতা কাজে লাগাতে পারে সে লক্ষ্যে তাদের যথাযথ প্ল্যাটফর্ম প্রদান করাই এই “করোনাথন-১৯” এর উদ্দেশ্য।

প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহন করতে ভিজিট করুন: /https://coronathon19.daffodilvarsity.edu.bd/

“করোনাথন-১৯” একটা যুদ্ধের নাম, যা করোনার মহামারীর বিরুদ্ধে। ঘরে বসে লকডাউন অবস্থায় থাকা ছাত্র-ছাত্রীদের মেধাকে প্রযুক্তির কাজে লাগিয়ে করোনা ভাইরাস মোকাবেলার একটি হেকাথন (ঐধপশধঃযড়হ) এর নাম করোনাথন-১৯। যার আয়োজক ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি।

ঘরে বসেই অংশগ্রহন করতে পারবে স্কুল-কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ুয়া সারা বিশ্বের ছাত্রছাত্রীরা। প্রযুক্তিগুলোর মাধ্যমে স্বাস্থ্যসেবা/খাদ্য ও পুষ্টি/ শিক্ষা সহ আরো অন্যান্য বিষয়ের উপর সমাধান বের করে আনাই এই করোনাথন-১৯ এর মূল লক্ষ্য।

ছাত্রছাত্রীদের জমা দেয়া প্রোজেক্ট বা সমাধানগুলি ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির এবং আন্তর্জাতিক পরিমন্ডলে সমাদৃত প্রযুক্তি বিশেষজ্ঞ দ্বারা পরীক্ষা- নিরীক্ষার মাধ্যমে নির্বাচিত করা হবে। নির্বাচিত সমাধানগুলোকে আরো পরিশালিত করার জন্য ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি আর্থিক অনুদান সহ উন্নত ল্যাব সেবা প্রদান করবে।

 

-সিনিউজভয়েস/জিডিটি/২৭এপি./২০

Please Share This Post.