ওপেন গভর্নমেন্ট ডেটা শীর্ষক জাতীয় প্রশিক্ষণ কর্মশালা শুরু

 

ইউএনডিপি এবং ইউএসএইড এর কারিগরি সহায়তায় প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের বাস্তবায়নাধীন অ্যাকসেস টু ইনফরমেশন প্রোগ্রাম (এটুআই) এবং জাতিসংঘের অর্থনীতি এবং সামাজিক বিষয় সম্পর্কিত প্রতিষ্ঠান ইউনাইটেড নেশান্স ডিপার্টমেন্ট অব ইকোনোমিক অ্যান্ড সোশ্যাল অ্যাফেয়ার্স (ইউএনডেসা) যৌথ উদ্যোগে রাজধানীর সিরডাপ মিলনায়তনে ৪ দিনব্যাপী টেকসই উন্নয়নে ওপেন গভর্নমেন্ট ডেটা শীর্ষক জাতীয় প্রশিক্ষণ কর্মশালা  ১৫ মে রোববার থেকে শুরু হয়েছে।

কর্মশালার উদ্বোধনী দিনের প্রধান অতিথি ছিলেন ডাক ও টেলিযোগাযোগ  প্রতিমন্ত্রী বেগম তারানা হালিম, এমপি।

এছাড়াও বিশেষ অতিথি হিসেবে কর্মশালায় বক্তব্য রাখেন কানিজ ফাতেমা, এনডিসি, সচিব, পরিসংখ্যান ও তথ্য ব্যবস্থাপনা বিভাগ; আ ন ম জিয়াউল আলম, সচিব (সমন্বয় ও সংস্কার), মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ এবং নিক বেরেসফোর্ড, ডেপুটি কান্ট্রি ডিরেক্টর, ইউএনডিপি বাংলাদেশ।

প্রধান অতিথি তার বক্তব্যে বলেন, ‘আমাদের সরকার গণতান্ত্রিকভাবে জনগণের ক্ষমতায়নে বিশ্বাস করে। সরকারি ডেটার উম্মুক্তকরণ সরকারের জবাবদিহিতা এবং সংস্কার নিশ্চিত করতে সহায়ক হবে। সরকারি ডেটা এবং ইনফরমেশন-এর ক্রমবর্ধমান ব্যবহার জনগণকে সরকারের কর্মকাণ্ড সম্পর্কে পরিপূর্ণ ধারণা দেবে যা সরকারি সেবা প্রদানের ক্ষেত্রে জনগণের ক্ষমতায়ন নিশ্চিত করবে।’

বিশেষ অতিথি কানিজ ফাতেমা, এনডিসি, সচিব, পরিসংখ্যান ও তথ্য ব্যবস্থাপনা বিভাগ, বলেন, ‘আমাদের স্বপ্নদর্শী প্রধানমন্ত্রী দক্ষতার সঙ্গে সরকারি সেবার পাশাপাশি নাগরিক-জীবনকে সহজতর এবং উন্নত করার লক্ষ্যে এই ওপেন গভর্নমেন্ট ডেটার সম্ভাবনাকে নিশ্চিত করতে আগ্রহী। পরিসংখ্যান ও তথ্য ব্যবস্থাপনা বিভাগ এই লক্ষ্যকে সম্পূর্ণভাবে সমর্থন করে এবং আজ এখানে উপস্থিত সরকারি সকল প্রতিনিধি সংস্থাকে এই দর্শনের একটি অঙ্গীকারাবদ্ধ অংশীদার হতে অনুরোধ করছে।’

কর্মশালায় বক্তারা তাদের বক্তব্যে তথ্য উন্মুক্ত করণের ফলে বাংলাদেশ সরকার, বিভিন্ন সরকারি-বেসরকারি প্রতিষ্ঠান এবং জনগণ কীভাবে উপকৃত হবেন তা তুলে ধরেন। এছাড়াও ওজিডি-এর বাস্তবায়ন কীভাবে বাংলাদেশের ক্ষেত্রে এসডিজি এর লক্ষ্য পূরণে সহায়ক হবে সেই সংক্রান্ত বিভিন্ন বিষয়ের ওপর গুরুত্বারোপ করেন।

মূলতঃ ওপেন গভর্নমেন্ট ডাটা সম্পর্কে জ্ঞান বৃদ্ধি, সরকারি-বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের কাছে জাতিসংঘের ২০৩০ সালের টেকসই উন্নয়ন কর্মসূচি বাস্তবায়ন এবং নতুন চাহিদার উপস্থাপন, এর সঙ্গে সংশ্লিষ্ট সরকারি-বেসরকারি কর্মকর্তা, পরিসংখ্যানবিদ, চিফ ইনোভেশন অফিসার, বেসরকা প্রতিষ্ঠানের প্রতিনিধি, সংবাদকর্মী এবং সংবাদ মাধ্যমের কর্মকর্তাদের সচেতনতা বৃদ্ধি করার লক্ষ্যে এই প্রশিক্ষণ কর্মশালার আয়োজন করা হয়েছে।

বুধবার পর্যন্ত প্রতিদিন সকাল ৯টা থেকে বিকাল ৫টা পর্যন্ত এই কর্মশালা অনুষ্ঠিত হবে।

উল্লেখ্য, ‘জনগণের দোরগোড়ায় সেবা’ স্লোগান নিয়ে ডিজিটাল বাংলাদেশ বিনির্মাণের সূচনালগ্ন থেকে অ্যাকসেস টু ইনফরমেশন প্রোগ্রাম জনগণকে তথ্য এবং সেবা প্রদান নিশ্চিত করার লক্ষ্যে কাজ করে আসছে। নাগরিকদের তথ্য অধিকার নিশ্চিত করতে বিভিন্ন প্রয়োজনীয় তথ্য নাগরিকদের কাছে সহজলভ্য করে সেবার মান উন্নয়ন এবং প্রসার, রিসোর্সের আদান-প্রদান করতে প্রয়োজনীয় সরকারি তথ্য উম্মুক্তকরণ অতীব জরুরি। সে লক্ষ্যে এটুআই এবং জাতিসংঘের অর্থনীতি এবং সামাজিক বিষয় সম্পর্কিত প্রতিষ্ঠান ইউনাইটেড নেশান্স ডিপার্টমেন্ট অব ইকোনোমিক অ্যান্ড সোশ্যাল অ্যাফেয়ার্স (ইউএনডেসা) একযোগে কাজ করছে।

 

 

সিনিউজভয়েস ডেস্ক

Please Share This Post.