এস বাইক মোড সমৃদ্ব্য গ্যালাক্সি জে৫ ও জে৭ বাজারে

স্যামসাং মোবাইল বাংলাদেশ বাজারে এনেছে জে সিরিজের ২০১৬ এডিশনের জে৫ ও জে৭ স্মার্টফোন। এসব ডিভাইসে আল্ট্রা-ডাটা সেভিং মোড সহ নতুন নতুন বেশ কিছু ইউনিক ফিচার রয়েছে যা আমাদের বাইক চালানো অবস্থায় আপনার কাংক্ষিত ব্যক্তিকে আপনার অবস্থান ভয়েস এর মাধ্যমে জানিয়ে দিতে সক্ষম এমই এই দুটি ফোন বাংলাদেশের বাজারে পাওয়া যাচ্ছে।

বিস্তারিত পড়ুন:—
এস বাইক মোড
বাইক চালানো অবস্থায় ইনকামিং কলগুলোকে নিয়ন্ত্রণ করবে। কুইক অ্যাক্টিভেশন, আর্জেন্ট কল অ্যালার্ট সিস্টেম ও মোশন লকের মাধ্যমে এই ইউনিক মোডটি কাজ করে। ২০১৬ এডিশনের জে সিরিজের হ্যান্ডসেটগুলোর নোটিফিকেশন প্যানেলে প্রবেশ করে এস বাইক মোডটি অ্যাক্টিভেট করতে পারবেন। স্যামসাং গ্যালাক্সি ২০১৬ এডিশনের জে সিরিজের হ্যান্ডসেটগুলোতে রয়েছে এনএফসি কানেক্টিভিটি, যার সাহায্যে ব্যবহারকারীরা এনএফসি ট্যাগটি ট্যাপ করেও এ মোডটি চালু করতে পারবেন। এই মোডের মাধ্যমে ব্যবহারকারী কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ নম্বরকে চিহ্নিত করে রাখতে পারবেন, এতে তারা গাড়ি চালানো অবস্থাতেও নোটিফিকেশন পাবেন। যদি কলটি জরুরি হয়, তাহলে কলার ১ প্রেস করলে ব্যবহারকারীর কাছে কলটি পৌঁছে যাবে।

galaxy j5
নিরাপদ যোগাযোগে উৎসাহিত করার জন্য এস বাইক মোডের মোশন লক ফিচার এটি নিশ্চিত করে যে, ব্যবহারকারী যদি কোনো জরুরি ইনকামিং কল রিসিভ করতে চান তবে তাকে বাইক সম্পূর্ণভাবে থামানোর পর কলটি রিসিভ করতে হবে। এস বাইক মোড চালু অবস্থায় ব্যবহারকারী কলারের নোটিফিকেশনস দেখতে পাবেন। স্মার্ট রিপ্লাই ফিচারের মাধ্যমে নির্বাচিত নম্বরগুলো অটোমেটিক এসএমএস পাবেন। এতে নির্বাচিত কলাররা ফোন করলে কতক্ষণ পর বাইক চালক রিসিভ করতে পারবেন তার সম্ভাব্য সময় কলারদের জানিয়ে দেয়া হবে।

জে৭ ২০১৬ এডিশন ৪জি এলটিই সমৃদ্ধ এসব হ্যান্ডসেটগুলোর কর্মক্ষমতা বাড়াতে আছে ৩৩০০ এমএএইচ  এবং জে৫ ২০১৬ এডিশন কর্মক্ষমতা বাড়াতে আছে ৩১০০ এমএএইচ ব্যাটারি।
সম্পূর্ণ নতুন এক অভিনব স্মার্টফোনের অভিজ্ঞতা দিতে এই ফোনগুলোতে রয়েছে এক্সেপশনাল পারফরম্যান্স, আকর্ষণীয় ক্যামেরা ও চমৎকার ডিসপ্লে। গ্যালাক্সি জে৭ ২০১৬ এডিশনে ৫.৫ ইঞ্চি এবং গ্যালাক্সি জে৫ ২০১৬ এডিশনে রয়েছে ৫.২ ইঞ্চির এইচডি সুপার অ্যামোলেড ডিসপ্লে। এই হ্যান্ডসেটগুলোতে আরো আছে এফ ১.৯ অ্যাপারচার সমৃদ্ধ ১৩ মেগাপিক্সেলের অসাধারণ রিয়ার ক্যামেরা, যা দিয়ে যেকোনো পরিবেশের আলোয় চমৎকার সব ছবি তোলা যাবে। সহজেই চমৎকার সব ছবি তুলতে ফোনটির সামনে ও পেছনের ক্যামেরায় থাকছে এলইডি ফাশ, ম্যানুয়াল অ্যাপারচার সেটিংস ও অ্যাডভান্সড ফটো সেটিংস। এই ফোনগুলোতে ২জিবি র‌্যামসহ আরো আছে যথাক্রমে ৬৪-বিটের অক্টাকোর (১.৬ গিগাহার্জ) এবং কোয়াডকোর প্রসেসর (১.২ গিগাহার্জ) যা দ্রুত কার্যসম্পাদনে সাহায্য করবে।

আল্ট্রা-ডাটা সেভিং মোড
এর মাধ্যমে একই সাথে মোবাইল ডাটা ব্যবহার এবং ডাটা অপটিমাইজেশনের মাধ্যমে ডাটা সংরক্ষণ করতে পারবেন। এজন্য মেন্যু থেকে ইউডিএস আইকন চেপে এই মোডটি চালু ও বন্ধ করতে পারবেন। আল্ট্রা-ডাটা সেভিং মোড ৫০ শতাংশ পর্যন্ত ডাটা সাশ্রয় করতে পারে। এর স্মার্ট ম্যানেজার কত শতাংশ ডাটা খরচ এবং কত শতাংশ অবশিষ্ট রয়েছে তা ব্যবহারকারীকে জানাবে। ইউডিএস মোডের মাধ্যমে ডাটা কম্প্রেশন হওয়ার ফলে ইন্টারনেট ব্যবহারের খরচ কমে যায়।
এই বিশেষ ইউডিএস মোড ১১ শতাংশ পর্যন্ত র‌্যাম সংরক্ষণ করতে সক্ষম। এই মোড ভিডিও চলাকালীন সময়ে ৫০ শতাংশ পর্যন্ত ডাটা সংরক্ষণ করতে পারে। নিউজ সাইট/অ্যাপ ভিজিট করতে এই ইউডিএস মোডটি ৪০ শতাংশ পর্যন্ত এবং ব্রাউজিং এর সময় ৩০ শতাংশ পর্যন্ত ডাটা সংরক্ষণ করে।
স্যামসাং মোবাইল বাংলাদেশের প্রতিনিধীরা জানান, স্যামসাং গ্রাহকের নতুন অভিজ্ঞতা এবং উন্নত প্রযুক্তির সমন্বয়ে প্রতিজ্ঞাবদ্ধ। এই হ্যান্ডসেটগুলো কিনতে তিন মাসের ইএমআই সুবিধা উপভোগ করতে পারবেন। স্যামসাং গ্যালাক্সি জে৭ ২০১৬ এডিশনের দাম ২৪ হাজার ৯০০ টাকা এবং গ্যালাক্সি জে৫ ২০১৬ এডিশনের দাম ২১ হাজার ৯০০ টাকা। এই হ্যান্ডসেটগুলো সোনালি, কালো ও সাদা রঙে বাজারে পাওয়া যাচ্ছে।

-গোলাম দাস্তগীর তৌহিদ

Please Share This Post.