ইয়োন্ডার মিউজিকের অংশীদার সাকিব আল হাসান

যুক্তরাষ্ট্র ভিত্তিক বাংলাদেশের শীর্ষস্থাণীয় মিউজিক অ্যাপ ইয়োন্ডারের অংশীদার হলেন, দেশের ক্রিকেট সেনশেসন এবং বিশ্ব সেরা ক্রিকেট অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান। ইয়োন্ডার বর্তমান দুনিয়ায় শ্রোতাদের কাছে সবচেয়ে দ্রুত জনপ্রিয়তা পাওয়া মিউজিক অ্যাপ। সাকিব সবসময়ই একজন সঙ্গীতপ্রেমী এবং বাংলাদেশে ইয়োন্ডারের উদ্বোধনের দিন থেকেই একে সমর্থণ করে যাচ্ছেন। বাংলাদেশে গান শোনার প্রধান মাধ্যম হিসেবে এই অ্যাপসটিকে বেছে নেয়ার জন্যে এ্যাম্বাসেডর হিসেবেও যুক্ত হলেন সাকিব।

দেশের সেরা ক্রিকেট তারকা এবার সেরা মিউজিক অ্যাপস ইয়োন্ডারের সঙ্গে যুক্ত হলেন। লক্ষ্য কোটি খেলা অনুরাগী এবং সঙ্গীত প্রেমী উভয়ের জন্যেই এটি হবে এক নাম্বার প্ল্যাটফর্ম।

ইয়োন্ডারের বিশেষ গান এবং গানগুলোর তালিকায় সাকিবকে দেখা যাবে। এছাড়াও টেলিভিশন বিজ্ঞাপনে, সরাসরি উপস্থাপনায়, শ্রোতাদের সঙ্গে সাক্ষাৎ এবং সৌজন্যতা বিনিময়ের মাধ্যমেও তিনি প্রচার করবেন। এছাড়াও সাকিবের ক্রিকেট ব্যাটেও স্টিকার থাকবে। যা ভিন্নরুপে ইয়োন্ডারকে তুলে ধরবে।

বাংলাদেশে আসা নতুন নতুন অ্যাপগুলোর জন্যে ইয়োন্ডার মিউজিকও অনুকরনীয় একটি অ্যাপ। গত নভেম্বর মাসে বাংলাদেশে ইয়োন্ডার মিউজিক এতো বেশি ডাউনলোড হয়েছে যে সেটা ফেসবুককেও ছাড়িয়ে গিয়েছিল। এই অবিশ্বাস্য সাফল্যের মধ্য দিয়ে ইয়োন্ডার মিউজিক দেশের এক নাম্বার মিউজিক অ্যাপ হিসেবে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করেছে। ইয়োন্ডার দেশের সঙ্গীতাঙ্গনে এবং জীবনধারায় এক বৈপ্লবিক পরিবর্তন নিয়ে আসতে চায়।

চুক্তিস্বাক্ষর অনুষ্ঠানে সাকিব আল হাসান বলেন, “ইয়োন্ডারকে আমার পছন্দ কারণ এখানে মনিার এবং হৃদয় থেকে শুরু করে এড শরিান বা ব্রুনো মারসের গানও রয়েছে।  আমাদের এই অংশীদারিত্ব হচ্ছে ইয়োন্ডারের সাফল্যের জন্যে একসঙ্গে কাজ করা এবং সমাজের জন্যে ভাল কিছু করা।

সাকিব ছাড়াও এই চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন, ইয়োন্ডার মিউজিকের সিইও এডাম কিড্রন, এশিয়ার এক্সিকিউটিভ ভাইস প্রেসিডেন্ট আদ্রিয়ান বার্টন, দক্ষিণ এশিয়ার ভাইস প্রেসিডেন্ট রাজ থিল্লাইয়ামপালাম, বাংলাদেশের কান্ট্রি ম্যানেজার নভেরা নূর, রবি আজিয়াটা লিমিটেডের সিসিও প্রদীপ শ্রীভাসতাভা, ভাস এন্ড ভয়েজের ভাইস প্রেসিডেন্ট মাহবুবুল আলম ভূঁইয়া, ভাস’এর জেনারেল ম্যানেজার শাকিল ফারহান মিথুন, ভাস’এর ম্যনেজার মুহাম্মদ রাকিবুল বাশার এবং অন্যান্য উর্ধ্বতন কর্মকর্তাবৃন্দ।

ইয়োন্ডার মিউজিকের প্রতিষ্ঠাতা এবং সিইও এ্যডাম কিড্রন বলেন, “সাকিবের সঙ্গে ২০১৭ সালের বিপিএল’এ প্রথম দেখা হয়। তখন ঢাকা ডায়নামাইটসের সফল স্পন্সর ছিলো ইয়োন্ডার। তখনই বোঝা যায়, সাকিব ইয়োন্ডারের জন্যে আদর্শ এ্যাম্বাসেডর। কারণ সে ভীষন রকমের সঙ্গীত অনুরাগী এবং তরুনদের জন্যে অনুকরনীয়।

“সাকিবকে ইয়োন্ডার মিউজিকের শেয়ারহোল্ডার এবং পার্টনার হিসেবে পেয়ে আমরা গর্বিত বোধ করছি, বলেন তিনি।
অনুষ্ঠানে ইয়োন্ডারের কান্ট্রি ম্যানেজার নভেরা নূর বলেন, আমরা আশা করি সাকিবের সঙ্গে আমাদের এই অংশীদারিত্বের ফলে বাংলাদেশে বিনোদনে এক নতুন বৈপ্লবিক পরিবর্তন সূচিত হবে। ইন্টারনেটে অনলাইন এবং অফলাইনে আমাদের শ্রোতারা এক অভূতপূর্ব অভিজ্ঞতা লাভ করবে, যেটা আসলে টাকা দিয়েও কেনা সম্ভব নয়। বর্তমানে একটি কোম্পানি সবসময়ই শীর্ষে থাকার জন্যে সেরাটা দিতে হয়। সাকিব এবং ইয়োন্ডারের নতুন জুটি একের পর এক ছক্কা হাকিয়ে যাবে এবং সাফল্যেও চূড়ায় পৌছাবো।

সিনিউজেভয়েস//ডেস্ক/

 

 

Please Share This Post.