ইউল্যাবে হয়ে গেলো কানেক্টিং স্টার্টআপস প্রতিযোগিতার সেমিনার

কানেক্টিং স্টার্টআপস প্রতিযোগিতাকে সামনে রেখে আজ ২৭ জানুয়ারি, শনিবার সেমিনারের আয়োজন করেছে ইউনিভার্সিটি অব লিবারেল আর্টস বাংলাদেশ (ইউল্যাব)। সেমিনারে দিক-নির্দেশনামূলক বক্তব্য দিয়েছেন তরুণ সফল উদ্যোক্তা বেসিস সভাপতি শামীম আহসান। কানেক্টিং স্টার্টআপস হচ্ছে নবীন উদ্যোক্তাদের আইডিয়া বাস্তবাায়নে সহযোগিতা করার পাশাপাশি দেশিবিদেশি বিনিয়োগকারীদের সঙ্গে যোগসূত্র তৈরির একটি প্রতিযোগিতা।

প্রযুক্তিক্ষেত্রে নতুন উদ্ভাবনী আইডিয়া আপনার থাকলে যে কেউ এ প্রতিযোগিতায় অংশ নিতে পারবে। উদ্ভাবনী ব্যবসায়িক ভাবনা নিয়ে একক কিংবা দলীয়গতভাবে এ প্রতিযোগিতায় অংশ নেয়া যাবে। এছাড়া যারা ইতিমধ্যে পণ্য অথবা সেবামূলক স্টার্টআপ ব্যবসা শুরু করার পাশাপাশি সৃজনশীল ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা নিয়ে রেখেছে তারাও প্রতিযোগিতায় নিজেদের নাম যুক্ত করতে পারবে। স্মার্টআপ কমিটি প্রতিযোগিদের আবেদন যাচাই করে স্কোর দিবেন। স্কোরিং-এর উপর ভিত্তি করে সেরা আবেদনকারীরা তাদের প্রজেক্ট উত্থাপন করবে যেখান থেকে সেরা ১০ প্রতিযোগি বাছাই করা হবে উদ্ভাবনী ব্যবসায়িক ভাবনা বা আইডিয়া ক্যাটাগরি থেকে এবং বাকি ১০ ফাইনাল প্রতিযোগি বাছাই হবে স্টার্টআপ ব্যবসা বা গ্রোথ স্টেজ ক্যাটাগরি থেকে।

মূল প্রতিযোগিতায় অভিজ্ঞ ও উচ্চপদস্থ প্যানেলের সামনে লড়বে বাছাইকৃত এই ২০ প্রতিযোগি। দুটি ক্যাটাগরির প্রতিটি থেকে ৫টি করে প্রতিযোগি বাছাই করা হবে। বিজয়ী ১০ প্রতিযোগিরাই পাবে জনতা সফটওয়্যার টেকনোলজি পার্কে স্টার্টআপদের জন্য বরাদ্দকৃত ফ্লোরে অফিস, অর্থসংস্থানের ব্যবস্থা, উদ্ভাবনী অনুদান, মেন্টরশিপ, আইনি সহায়তাসহ বিশ্ব স্টার্টআপস এক্সেলারেটর প্রোগ্রামে অংশ নেয়ার সুযোগ।

বেসিস সভাপতি শামীম আহসান বলেন, ‘সমাজকে ভালো কিছুর দিকে নিয়ে যেতে পারবে তরুণদের সৃজনশীল চিন্তা-ভাবনা। ভিশন ২০২১-কে সামনে রেখে সরকারের আইসিটি ডিভিশন বিএইচটিপিএ, বেসিস, বিসিসি ও বেসিস স্টুডেন্ট ফোরামকে সঙ্গে নিয়ে কানেক্টিং স্টার্টআপস আয়োজন করেছে। তথ্যপ্রযুক্তিকে কাজে লাগিয়ে উদ্ভাবনী ও সৃষ্টিশীল পরিকল্পনার যথাযোগ্য বাস্তবায়ন ঘটানোই আমাদের মূল উদ্দেশ্য।’ নিজের ব্যাক্তিগত অভিজ্ঞতার কথা বলতে গিয়ে বেসিস সভাপতি জানান, নিজেদের ক্ষুদ্র চেষ্টার প্রতিফলন ঘটানোর মধ্য দিয়েই একজন সফল উদ্যোক্তা হওয়া যায়।

উল্লেখ্য, আজকের সেমিনারে অন্যান্যদের মাঝে আরো উপস্থিত ছিলেন ইউল্যাবের ভাইস চ্যান্সেলর অধ্যাপক ইমরান রহমান, ইউল্যাবের সিএসই বিভাগের প্রধান অধ্যাপক সাজ্জাদ হোসেন, বেসিসের পরিচালক সানি এম ডি আশরাফ খান এবং সামিরা জুবেরি হিমিকা প্রমুখ।

প্রতিযোগিতাটি যৌথভাবে আয়োজন করেছে সরকারের তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি (আইসিটি) বিভাগ, বেসিস, বাংলাদেশ হাইটেক পার্ক কর্তৃপক্ষ (বিএইচটিপিএ) এবং বাংলাদেশ কম্পিউটার কাউন্সিল (বিসিসি)। সহযোগিতায় কাজ করছে বেসিস স্টুডেন্ট ফোরাম ও ইউনিভার্সিটি অব লিবারেল আর্টস বাংলাদেশ (ইউল্যাব)।

সিনিউজভয়েস/ডেক্স

Please Share This Post.