ইউরোপিয়ান কনজ্যুমার স্মার্টফোন অ্যাওয়ার্ড জিতলো হুয়াওয়ে পি নাইন

ইউরোপিয়ান ইমেজ অ্যান্ড সাউন্ড অ্যাসোসিয়েশন (ইআইএসএ)-এর পরিচালনায় আয়োজিত ‘ইউরোপিয়ান কনজ্যুমার স্মার্টফোন ২০১৬-১৭’ অ্যাওয়ার্ড জিতে নিলো বিশ্বের শীর্ষস্থানীয় প্রযুক্তি নির্মাতা ও সেবাদাতা প্রতিষ্ঠান হুয়াওয়ে কনজ্যুমার বিজনেস গ্রুপ (বিজি)-এর নতুন হুয়াওয়ে পি নাইন স্মার্টফোন। ডিভাইসে সেরা মান ও দৃষ্টি-নন্দন ডিজাইন বজায় রাখায় টানা চতুর্থবারের মতো উক্ত ক্যাটাগরিতে সন্মানিত এই পুরষ্কারে ভূষিত হলো প্রতিষ্ঠানটি।

স্মার্টফোন ফটোগ্রাফির ওপর বিশেষ গুরুত্ব দিয়ে হুয়াওয়ে পি নাইনের ক্যামেরা তৈরি করা হয়েছে বিশ্বখ্যাত ক্যামেরা নির্মাতা ব্র্যান্ড লাইকা ক্যামেরা এজি’র প্রযুক্তিগত সহায়তায়। ডুয়েল লেন্স ক্যামেরার পি নাইন ডিভাইসটি স্মার্টফোন ফটোগ্রাফিকে নতুন এক উচ্চতায় নিয়ে গেছে। ভিভিড কালারস এবং সাদা-কালো ছবি তোলার ক্ষেত্রে স্বচ্ছ, উন্নত ও অকৃত্রিম আউটপুট দিতে সক্ষম হুয়াওয়ে পি নাইন।

হুয়াওয়ে পি নাইনে এমনসব ফিচার যুক্ত করা হয়েছে যা স্মার্টফোনের গুরুত্বকে কার্যকরভাবে ফুটিয়ে তোলে। ৫.২ ইঞ্চির আইপিএস নিও-এলসিডি ক্যাপাসিটিভ ২.৫ডি ডিসপ্লে সমৃদ্ধ পি নাইনে (১৯২০ বাই ১০৮০) ফুল এইজডি রেজ্যুলেশনের স্ক্রিন ব্যবহার করা হয়েছে ফলে প্রাণবন্ত এবং সুন্দর ছবির নিশ্চয়তা পাওয়া যায়। ডিভাইসটিতে প্রসেসর হিসেবে ব্যবহার করা হয়েছে ক্ষমতাসম্পন্ন হাইসিলিকন ক্রিন ৯৫৫ মডেলের এসওসি অক্টাকোর প্রসেসর। ফোনটিতে রয়েছে অ্যান্ড্রয়েড ৬.০ মার্শম্যালো অপারেটিং সিস্টেম। দ্রুত ও পরিবর্তনশীল দৃষ্টিনন্দন থিম, ক্যামেরা সেটিংস, কন্টাক্ট লিস্টসহ বেশ কয়েকটি ফিচার কাস্টোমাইজ করতে ডিভাইসটিতে বিল্ট-ইন আছে ইমোশন ইউআই ৪.১। লাইকার ডুয়েল লেন্সের ব্যাক ক্যামেরা দিয়ে অনেক বেশি উজ্জল ও স্বচ্ছ ফুটেজ পাওয়া সম্ভব। এছাড়া লাইকার ক্যামেরা দিয়ে সহজেই প্রফেশনাল ক্যামেরার মতো ‘র’ ফুটেজ ক্যাপচার করার সুবিধাতো আছে।

দীর্ঘ সময় ধরে চিন্তামুক্ত ব্যবহারের উদ্দেশ্যে হুয়াওয়ে পি নাইন স্মার্টফোনে ৩০০০ মিলিঅ্যাম্পিয়ারের লিথিয়িাম পলিমার নন-রিমুভেবল ব্যাটারি যুক্ত করা হয়েছে। সফটওয়্যারের সঙ্গে ব্যাটারি ড্রেইনের সমন্বয় করা হয়েছে চমৎকারভাবে। স্টেট-অব দ্য আর্ট ডিজাইনের হুয়াওয়ের পি সিরিজের প্রিমিয়াম ফ্ল্যাগশিপ মডেল পি নাইন তৈরি করা হয়েছে ২.৫ডি গ্লাস, অ্যারোস্পেস অ্যালুমিনিয়াম বডি এবং ডায়মন্ড কাট এজ রাউন্ডেড নকশা ব্যবহার করে।

হুয়াওয়ে কনজ্যুমার বিজনেস গ্রুপ’র প্রধান বিপণন কর্মকর্তা গ্লোরি ঝ্যাং বলেন, ‘টানা চতুর্থবার ইআইএসএ অ্যাওয়ার্ড গ্রহণ করতে পেরে আমরা গর্বিত। ব্যবহারকারীদের স্মার্টফোনের ক্ষেত্রে নতুন উদ্ভাবণ ও অভিজ্ঞতা প্রদানে আমরা যে সফল হয়েছি সেটার প্রতিদান হিসেবে আমরা এ সন্মানে ভূষিত হয়েছি। পি নাইনের দৃষ্টি-নন্দন ডিজাইন, বিশ্বের সেরা ডিজাইনারদের সুক্ষ্ম বিষয়ের উপর গুরুত্বারোপ, সামগ্রিক উন্নয়নের ওপর জোর দেয়ার মতো পদক্ষেপগুলো ইআইএসএ-এর বিচারকদের মুগ্ধ করেছে।’

সারাবিশ্বে পি নাইন ও পি নাইন প্লাস রপ্তানী হয়েছে ৪.৫ মিলিয়নেরও বেশি। ইউরোপের দেশগুলো বিশেষ করে ফ্রান্স, ফিনল্যান্ড এবং যুক্তরাজ্যে রেকর্ড পরিমাণ পি নাইন বিক্রি হয়েছে। বিশ্বের বিভিন্ন দেশের হুয়াওয়ে আউটলেট, রিটেইলার ও মোবাইল অপারেটরগুলো থেকে ক্রেতাদের হুয়াওয়ে পি নাইন ক্রয় করার সুযোগ রাখা হয়েছে।

বাংলাদেশের বাজারে মাত্র ৪৭,৯৯০ টাকায় ৩ জিবি র‌্যাম ও ৩২ জিবি রম সংস্করণের হুয়াওয়ে পি নাইন ক্রয় করা যাবে। পি নাইন হ্যান্ডসেটটি বসুন্ধরা সিটি ও যমুনা পার্কের হুয়াওয়ে এক্সপেরিয়েন্স স্টোরসহ ও সারাদেশের অন্যান্য ব্র্যান্ডশপগুলোতেও ইতিমধ্যে পাওয়া যাচ্ছে।

 

– সিনিউজভয়েস ডেস্ক

Please Share This Post.