ইউপে ভার্চুয়াল ব্যাংকনোট

আমাদের দেশে বেশিরভাগ মানুষ ব্যাংকিং সুবিধা থেকে বঞ্চিত। তারা নগদ টাকায় লেনদেন করতে অভ্যস্ত। কিন্তু এজন্য সবসময় নগদ টাকা চুরি ও ছিনতাইয়ের ঝুঁকি থাকে। অথচ প্রায় ১৬ কোটি মানুষের মাত্র সামান্য একটি অংশ সহজে ব্যবহারযোগ্য এবং নিরাপদ মোবাইল ব্যাংকিং সিস্টেম ব্যবহার করে, যদিও বেশির ভাগ মানুষের মোবাইল ফোন আছে।

মোবাইল ব্যাংকিং-এ ব্যবহারে সবচেয়ে বড় বাধাটি মনস্তাত্ত্বিক, মানুষজন নগদ টাকা লেনদেনে অভ্যস্ত হয়ে যাওয়ার কারণে এই অভ্যাস থেকে বেরিয়ে আসতে পারছে না। এজন্য নতুন প্রযুক্তিকে জনপ্রিয় করতে আরও সৃজনশীল হতে হবে।

তাই ইউপে তৈরি করেছে ভার্চুয়াল ব্যাংকনোট, কম্পিউটারে তৈরি নোট যা যেকোনো মূল্যের এবং সংখ্যার হতে পারে (যেমন, ১১.৫০ টাকা, ২৩৪৪৫.৫০ টাকা, ৯৬.৫০ টাকা)। তাই, যখন ইউপে অ্যাপে লেনদেন করা হবে, তখন চাহিদা মতো কিউ.আর কোডটি সঠিক পরিমাণের ভার্চুয়াল নোটে রুপান্তরিত হবে।

যেহেতু বেশিরভাগ মানুষ এখনও মোবাইল ব্যাংকিং-এ অভ্যস্ত নন, তাই ইউপে অ্যাপ-এ লেনদেনের সময় কিউ.আর কোডের পরিবর্তে চাহিদা অনুযায়ী ভার্চুয়াল নোট দৃশ্যমান হবে। খুব সহজেই বাংলাদেশ-এর ব্যাংক সুবিধা বঞ্চিত মানুষজন ব্যাংকিং সুবিধা পাবে এবং ক্রমাগত নিরাপদ ও সুবিধাজনক আধুনিক মোবাইল ব্যাংকিং-এর প্রতি উৎসাহিত হবে।

ভার্চুয়াল ব্যাংকনোট ও আর্থিক লেনদেন করায় বাংলাদেশের জনগোষ্ঠীর একটি বৃহৎ অংশের কর প্রদান নিশ্চিত হবে যার মাধ্যমে রাজস্ব বৃদ্ধি হবে এবং দুর্নীতি দমনে বাংলাদেশ আরও এগিয়ে যাবে।

ভার্চুয়াল ব্যাংকনোট প্রযুক্তিটি ২০১৭ সালে ইউনাইটেড কমার্শিয়াল ব্যাংক লিমিটেড ‘ইউপে অ্যাপ’ নামে মোবাইল ব্যাংকিং পদ্ধতির উদ্ভাবন করে। যা ক্যাশলেস এবং সর্বজনীন প্রচারের গ্রহণযোগ্যতা পেয়েছে এবং বাংলাদেশ-এর যেকোনো মোবাইল ফোন নম্বর ব্যবহার করে যেকোনো জায়গায় লেনদেন করা যাবে। ইউপে ব্যবহারে সব ধরনের আর্থিক লেনদেন নিরাপদ করার জন্য ব্ল্যাকচেইন ও কিউ.আর (কুইক রেসপন্স কোড)-এর মতো নির্ভরযোগ্য প্রযুক্তি ব্যবহার করে হয়েছে।

গুগল প্লে এবং অ্যাপ স্টোর-এর মাধ্যমে ইউপে মোবাইল ব্যাংকিং এখন আধুনিক বিশ্বের সঙ্গে সংযুক্ত। সাইন আপ করতে এবং বিস্তারিত জানতে: www.upaybd.com

 

– সিনিউজভয়েস ডেস্ক

Please Share This Post.