অভূতপূর্ব সাড়া পেল ভালোবাসা দিবসের ক্যাম্পেইন

ভালোবাসা দিবস উপলক্ষে গত ১২ ফেব্রুয়ারি নিজেদের সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে একটি ভিডিও আপলোড করে গ্রামীণফোন। হৃদয়স্পর্শী বিষয়ের কারণে ইতিমধ্যেই ভিডিওটি দর্শকদের মাঝে আলোড়ন তুলেছে। সারা দেশের মানুষের কাছ থেকে অভূতপূর্ব সাড়া পেয়েছে গ্রামীণফোনের ভালোবাসা দিবসের ক্যাম্পেইন।

ভিডিওটি নির্মাণ করেছেন আবরার আতহার এবং মূল চরিত্রে অভিনয় করেছেন পূর্ণিমা বৃষ্টি। সমাজের প্রথাগত নিয়মের বাইরে গিয়ে নিজেকে ভালোবাসার মাধ্যমে স্বাধীনতা খুঁজে ফেরা এক নারীকে নিয়ে ভিডিওটির গল্প আবর্তিত হয়েছে। প্রচলিত অর্থের গণ্ডি পেরিয়ে ভিডিওটিতে ভালোবাসা দিবসের নতুন মানে দেখানো হয়েছে।

নিজেদের যাত্রাপথের পুরোটা সময় গ্রামীণফোন পরিবর্তনের বাহক হিসেবে কাজ করে আসছে। আর এরই ধারাবাহিকতায়, এ বছর প্রতিষ্ঠানটি নতুন প্রেক্ষিত ও সম্ভাবনা নিয়ে নতুন আলোচনার দ্বার উন্মোচন করেছে। বৈশ্বিক প্রবণতার সাথে তাল মিলিয়ে ইতিবাচক সামাজিক পরিবর্তনে ভূমিকা রাখা যেকোনো ব্র্যান্ডের জন্যই এখন অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। নব প্রজন্ম ও উঠতি তরুণদের সাথে নিয়েই নতুন এ পরিবর্তনের আনতে হবে। তাই, গ্রামীণফোনের এ বছরের ভালোবাসা দিবসের ক্যাম্পেইন নবযাত্রার ধারণার ওপরে তৈরি। এ ক্যাম্পেইনে এমন একটা বিষয় নিয়ে কাজ করা হয়েছে যার সাথে সকল বয়স ও সামাজিক শ্রেণির মানুষই যুক্ত কিন্তু এ বিষয়টা নিয়ে খুব কম মানুষই আলোচনা করে। বিষয়টি নিয়ে আলোচনার সূচনা করা ব্র্যান্ডটির নারীর ক্ষমতায়নের প্রতি অঙ্গীকারস্বরূপ।

এ নিয়ে গ্রামীণফোনের সাব্বির আহমেদ, ডেপুটি জেনারেল ম্যানেজার বলেন, ‘বিষয়টি সংবেদনশীল ও সামাজিকভাবে ‘ট্যাবু’ হিসেবে বিবেচিত হওয়ার কারণে এ ক্যাম্পেইন নিয়ে অনেক চিন্তা-ভাবনা করে আমাদের কাজ করতে হয়েছে। দেশের অগ্রগতির অংশ হিসেবে আমরা বিশেষ নৈপুণ্যতায় বিষয়টি ফুটিয়ে তুলতে চেষ্টা করেছি। আমরা আনন্দিত, আমাদের ভিডিওটি লক্ষাধিক মানুষের হৃদয় স্পর্শ করেছে।

ভিডিওটির নির্মাতা  আবরার আতহার বলেন, ‘এ ক্যাম্পেইনের সাথে থাকতে পেরে আমি গর্বিত।’

-সিনিউজভয়েস/জিডিটি/১৭এফ/১৯

Please Share This Post.